kalerkantho

সোমবার। ২৩ জানুয়ারি ২০১৭ । ১০ মাঘ ১৪২৩। ২৪ রবিউস সানি ১৪৩৮।


করতে হবে ৩৫-এর আগেই

২৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



করতে হবে ৩৫-এর আগেই

১. এগিয়ে যাওয়ার সিঁড়ি : পেশাগত জীবনে উন্নতির জন্য নির্দিষ্ট একটি সিঁড়ি আপনাকে বানিয়ে নিতে হবে ৩৫ বছর বয়সের মধ্যেই। এ সিঁড়ি ধরেই পরবর্তীতে আপনি পেশাজীবনে আরো উপরে উঠতে পারবেন।

২. নিজের শক্তিকে জানুন : অন্যদের চেয়ে আপনাকে আপনিই সবচেয়ে বেশি চেনেন, বোঝেন। কোন বিষয়ে আপনি দক্ষ, তা আপনিই ভালো বলতে পারবেন। কিন্তু সেই দক্ষতাকে ধরে এগিয়ে যাওয়ার পথ বের করতে ৩৫ বছর পার করা ঠিক হবে না।

৩. দুর্বলতাকে জানুন : চাকরি কিংবা ব্যবসায়িক জীবনের শেষ দিকে দুর্বলতা খুঁজে বের করে খুব একটা লাভ হবে না। দুর্বলতা খুঁজে বের করতে হবে আগেই। তাহলে সেই দুর্বলতা কাটিয়ে উঠে প্রতিযোগিতায় শেষ পর্যন্ত টিকে থাকতে পারবেন।

৪. পার্থক্য করা শিখুন : পেশাজীবনে এগিয়ে যেতে হলে আপনাকে শুরুর দিকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে কোন কোন বিষয়ের দায়িত্ব আপনি নেবেন, আর কোনগুলো নেবেন না। নইলে পরে গিয়ে বিড়ম্বনায় পড়তে পারেন।

৫. আগ্রহের বিষয় : আপনার আগ্রহের বিষয়গুলো সম্পর্কে জেনে নিন। তবে সব আগ্রহের বিষয় ধরে এগোনো ঠিক হবে না। আবার কয়েক দিন পরপর বিষয় পরিবর্তন করা আরেক বোকামি।

৬. ভুল থেকে শিক্ষা : পেশাজীবনে ভুল হতেই পারে। তবে সেগুলো থেকে শিক্ষা নিতে হবে। কিন্তু একটা বিষয় মাথায় রাখতে হবে, একেক বয়সে একেক ভুল অমার্জনীয় হিসেবে দেখা হয়।

৭. চাপ নেওয়ার ক্ষমতা বাড়ান : কাজের ক্ষেত্রে চাপ নেওয়ার ক্ষমতা বাড়াতে হবে। ধরুন, আপনি ৩০ জনের একটি দলকে পরিচালনা করতে পারেন। তাহলে চেষ্টা থাকবে ১০০ জনের দল পরিচালনা করার। কাজের চাপ নেওয়ার এই ক্ষমতা অর্জন করতে হবে ৩৫-এর আগেই।

৮. ভয়কে জয় : পেশাজীবনে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে ভয় অন্যতম এক প্রতিবন্ধকতা। ভয়ের কারণে অনেকেই অনেক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন না। কিন্তু ওই সিদ্ধান্তেই হয়তো পাল্টে যেত আপনার পেশাজীবন!

৯. না বলা শিখুন : কোনো বিষয়ে নিজের অপারগতা প্রকাশ করা অনেক সময় কঠিন হয়ে পড়ে। তবে বাস্তব জীবনে এ কথা বলার গুরুত্ব আছে।

বিজনেস ইনসাইডার অবলম্বনে ওমর শরীফ পল্লব


মন্তব্য