kalerkantho


সহিংসতায় নিহত ১, আহত ৮৪

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



সহিংসতায় নিহত ১, আহত ৮৪

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রচারের সময় গতকাল রবিবার রাতেই শেষ হয়েছে। এর আগের দিন শনিবার রাতে প্রচার চালানোর সময় পাবনায় আওয়ামী লীগ ও এর ‘বিদ্রোহী’ দুই প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষের সময় গুলিতে নিহত হয়েছেন একজন।

গতকাল ভোলার একটি ইউনিয়নে এক সদস্য প্রার্থীর হাতের কবজি কেটে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এই দুই জেলাসহ মাদারীপুর, শেরপুর, পটুয়াখালী, ঝালকাঠি ও কুমিল্লায় নির্বাচনী সহিংসতায় আহত হয়েছে আরো অন্তত ৮৪ জন।

ইউনিয়ন পরিষদের প্রথম ধাপের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গতকাল পর্যন্ত সহিংসতায় নিহত হয়েছে মোট ৯ জন। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

পাবনায় গুলিতে একজন নিহত : বেড়া উপজেলার প্রত্যন্ত চরাঞ্চল ঢালারচরে আওয়ামী লীগদলীয় প্রার্থী ও দলের বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের সময় গুলিতে নিহত হয়েছেন গহের মণ্ডল নামের একজন। আহত হয়েছে সাতজন। শনিবার রাতে ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী কোরবান আলী সরদারের সমর্থকরা মিরপুর গ্রামে একই দলের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী নাসির উদ্দিন ব্যাপারীর সমর্থকদের সঙ্গে সংঘর্ষ বেধে যায়। এ সময় গুলিতে নিহত হন গহের। তিনি নাসির উদ্দিনের সমর্থক।

ভোলায় সদস্য প্রার্থীর হাতের কবজি কেটে নিল দুর্বৃত্তরা : গতকাল সকালে লালমোহন উপজেলার ধলীগৌরনগর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য পদপ্রার্থী জাকির হোসেন ভূঁইয়া চর মোল্লাজি গ্রামে নির্বাচনী প্রচারে যান।

ওই সময় দুর্বৃত্তরা তাঁর বাঁ হাতের কবজি কেটে বিচ্ছিন্ন করে পাশের খালে ফেলে দেয়। হামলায় আহত হয়েছে আরো একজন। এ ছাড়া শনিবার রাতে ভোলা সদর উপজেলার পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নে দুই সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে তাদের অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে।

ঝালকাঠিতে বোমায় যুবক আহত : সদর উপজেলার কীর্ত্তিপাশা ইউনিয়নের রুনসী গ্রামে সংরক্ষিত মহিলা সদস্য প্রার্থী আলো বেগমের ঘরে হাত বোমা বিস্ফোরণে তাঁর জামাতা রানার শরীরের একাংশ ঝলসে গেছে। ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আব্দুস শুক্কুর মোল্লা ও দলের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুর রহিমের সমর্থদের মধ্যে সংঘর্ষে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে।

মাদারীপুর : মাদারীপুরের সদর উপজেলার ঘটমাঝি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শনিবার রাতে ছয়না গ্রামে আওয়ামী লীগ মনোনীত ও দলের ‘বিদ্রোহী’ দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষে দুই নারীসহ আহত হয়েছেন প্রায় ১০ জন।  

শেরপুর : নালিতাবাড়ী উপজেলার রামচন্দ্রকুড়া-মণ্ডলিয়াপাড়া ইউনিয়নের বেলতৈল বাজার এবং কালাকুমা এলাকায় শনিবার রাতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আমান উল্লাহ বাদশার সমর্থকদের পৃথক হামলায় এক মুক্তিযোদ্ধাসহ ৫ জন আহত হয়েছে।  

পটুয়াখালী : বাউফল উপজেলার নওমালা ইউনিয়নের ভাঙ্গাব্রিজ এলাকায় গতকাল আওয়ামী লীগ ও ওই দলের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এর জের ধরে ১০টি বসতঘরে ভাঙচুর চালায়। এ সময় প্রায় ২০ জন আহত হয়েছে।

মুরাদনগর (কুমিল্লা) : দেবীদ্বার উপজেলার সুবিল ইউনিয়নের আবদুল্লাহপুর গ্রামে শনিবার রাতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী এম এ রশিদের নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।


মন্তব্য