kalerkantho


বাজিতপুরে আবুল কাসেম ফজলুল হক

ব্লগার হত্যাকাণ্ডের পেছনে একটা রাজনীতি আছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, হাওরাঞ্চল   

২০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



দুর্বৃত্তদের হামলায় নিহত প্রকাশক ফয়সাল আরেফিন দীপনের বাবা অধ্যাপক আবুল কাসেম ফজলুল হক বলেছেন, ‘দীপন হত্যা মামলার কোনো অগ্রগতি নাই। এ ধরনের অন্যান্য মামলার যে অবস্থা, এ মামলারও সেই অবস্থা।

আজকে যে দীপন নিহত হলো এবং তার আগে যে আটজন ব্লগার নিহত হলো এর পেছনে একটা রাজনীতি আছে। ’

গতকাল শনিবার তাঁর নিজ জেলা কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরে আব্দুল মান্নান স্বপন উচ্চ বিদ্যালয়ে স্কুল ও কলেজ পর্যায়ে রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন অধ্যাপক আবুল কাসেম ফজলুল হক। অনুষ্ঠান শেষে কালের কণ্ঠ’র সঙ্গে সংক্ষিপ্ত আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

অধ্যাপক আবুল কাসেম বলেন, ‘এখন কোনো সুস্থ বা স্বাভাবিক রাজনীতি চলছে না। ধর্মের পক্ষ-বিপক্ষ হয়ে মারামারি হচ্ছে। গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র, জাতীয়তাবাদ ও আন্তর্জাতিকতাবাদকে ব্যর্থ করা হচ্ছে। এর মধ্যে কোনো আদর্শ নেই; ধর্ম তো নেইই। রাজনীতি যদি এক ধরনের সুস্থতার মধ্যে আসে তবে সব কিছু পরিবর্তনের দ্বার উন্মোচন হবে। ’

এক প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক আবুল কাসেম বলেন, ‘অবশ্যই সকল মহলের শুভবুদ্ধির উদয় হবে এবং আমি আমার জীবদ্দশায় তা দেখে যেতে পারব।

মানুষের মন পরিবর্তিত হচ্ছে। এক দীপন হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমেরিকা-ব্রিটেন থেকে আরম্ভ করে অস্ট্রেলিয়া পর্যন্ত সর্বত্রই একটা ধাক্কা লেগেছে। লোকে চিন্তা করছে। আমরা চেষ্টা করব এবং আরো অনেকে চেষ্টা করবেন। এর মধ্য দিয়ে অবশ্যই একটা পরিবর্তন আসবে। ’

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাজিতপুর কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) আ কা মো. গোলাম মোস্তফা। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন আফতাবউদ্দিন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ সেলিনা আক্তার, জাগরণী শান্তি সংঘের আহ্বায়ক মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, অধ্যাপক মো. ওয়াহিদুজ্জামান, অধ্যাপক বরকতুল্লাহ পাঠান, বলিয়ারদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম, স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নান স্বপন প্রমুখ।

‘বাজিতপুরের ইতিহাস ও ঐতিহ্য’ বিষয়ে রচনা প্রতিযোগিতায় স্কুল পর্যায়ে আফতাবউদ্দিন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণির দুই ছাত্র মো. আরফান ও আফরাজ আহমেদ ইফতি প্রথম ও দ্বিতীয় এবং রাজ্জাকুন্নেছা স্কুল অ্যান্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী সানিয়া

আরফিন শান্তা তৃতীয় পুরস্কার পায়। এ ছাড়া কলেজ পর্যায়ে আফতাবউদ্দিন স্কুল অ্যান্ড কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র নাহিদ হাসান হূদয় ও একাদশ শ্রেণির ছাত্র জুলকারনাইন রকি দ্বিতীয় এবং বাজিতপুর কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী বেনজির জামান তৃতীয় পুরস্কার লাভ করে।


মন্তব্য