kalerkantho


রায়পুরায় দুই পক্ষের সংঘর্ষ শিক্ষার্থীসহ আহত ১০

নিজস্ব প্রতিবেদক, নরসিংদী   

২০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



নরসিংদীর রায়পুরায় আবদুল্লাহপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের অপসারণ দাবিতে মানববন্ধন করাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে শিক্ষার্থীসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

তাদের নরসিংদী জেলা হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। গতকাল শনিবার দুপুরে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান হাজী আবদুল মোমেন মিয়া ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কামাল উদ্দিন খন্দকারের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানায়, গত বছরের ৩০ আগস্ট আবদুল্লাহপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে হাজী আবদুল মোমেন মিয়ার সঙ্গে দ্বন্দ্ব হয় বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কামাল উদ্দিন খন্দকারের। চেয়ারম্যান মোমেনের অভিযোগ, নিয়োগ পরীক্ষার পরদিন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের উপস্থিতিতে পরীক্ষার ফল ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ছিনতাই করা হয়। এ ঘটনায় গত বছরের ৬ সেপ্টেম্বর ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ও তাঁর শ্যালক নাজিম উদ্দিন মেম্বারের বিরুদ্ধে রায়পুরা থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়।

গতকাল শনিবার সকাল ১১টায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের বিভিন্ন অনিয়মের প্রতিবাদে বিদ্যালয় চত্বরে মানববন্ধনের আয়োজন করেন ইউপি চেয়ারম্যান। এ খবর পেয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকসহ তাঁর লোকজনের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। দুপুর ১২টার দিকে মানববন্ধন কর্মসূচি পালনের জন্য চেয়ারম্যানসহ তাঁর লোকজন বিদ্যালয়ের দিকে এগিয়ে এলে বিদ্যালয়ের প্রবেশপথে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের লোকজন বাধা দেয়।

এতে উভয় পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে চেয়ারম্যানের সমর্থকরা বিদ্যালয় চত্বরে পৌঁছায়। এ সময় অপর পক্ষের লোকজন হামলা চালালে চেয়ারম্যান হাজী মোমেন নিজেকে রক্ষা করতে এক রাউন্ড ফাঁকা

গুলি ছোড়েন। পরে বিদ্যালয়ের অদূরে খালি মাঠে গিয়ে মানববন্ধন করেন তাঁরা।


মন্তব্য