kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ জানুয়ারি ২০১৭ । ৪ মাঘ ১৪২৩। ১৮ রবিউস সানি ১৪৩৮।


হেফাজতের মহাসচিব

রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিলের ষড়যন্ত্র দেশবাসী মানবে না

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় মহাসচিব আল্লামা হাফেজ মুহাম্মদ জুনাইদ বাবুনগরী বলেছেন, সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিলের ষড়যন্ত্র দেশবাসী বরদাশত করবে না। ৯২ শতাংশ মুসলমানের দেশে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম থাকবে কি থাকবে না, এ নিয়ে আদালতে মামলা ও শুনানি চলতে পারে না। সরকারকেই এ মামলা বাতিলের উদ্যোগ নিতে হবে।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে এক প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাবুনগরী এসব কথা বলেন। সরকারের উদ্দেশে হেফাজতের মহাসচিব বলেন, ‘জনগণের মনের ভাষা বোঝার চেষ্টা করুন। ইসলাম কিংবা মানুষের ধর্মীয় বিশ্বাস নিয়ে রুল বা আদেশ জারির এখতিয়ার আদালত রাখতে পারেন না। রাষ্ট্রধর্ম নিয়ে দেশবাসীর আকিদা-বিশ্বাসের বিরুদ্ধে কোনো রায় এলে দেশের সাড়ে চার লাখ মসজিদ থেকে প্রতিবাদের ঝড় উঠবে। ’

জুনাইদ বাবুনগরী বলেন, ‘নাস্তিকরা সরকারের ঘাড়ে বসে দেশের স্বাধীনতা, অর্থসম্পদ ও জনগণের ধর্মীয় বিশ্বাস লুটপাট ও ধ্বংস করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। এটা কোনোভাবেই চলতে দেওয়া যায় না, চলতে দেওয়া হবে না। ’ সরকারকে সতর্ক করে দিয়ে তিনি বলেন, ‘দেশে আইনশৃঙ্খলা ও সুশাসন প্রতিষ্ঠা করুন, দেশের সম্পদের লুটপাট বন্ধ করুন এবং ধর্মের ওপর একের পর এক আঘাত দেওয়ার অপতত্পরতা থামান। নইলে মানুষের ক্ষোভের দাবানল থেকে ষড়যন্ত্রকারীদের কেউই পালানোর পথ পাবে না। ’

হেফাজত মহাসচিব আরো বলেন, ‘বর্তমান সংবিধানে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম রাখার পাশাপাশি হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টানসহ অন্য সব ধর্মাবলম্বীর মর্যাদা ও অধিকারের কথা স্পষ্টভাবে লেখা আছে। সুতরাং সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম বাতিলের অর্থই হলো সাংবিধানিকভাবে নাস্তিকতাকে প্রতিষ্ঠিত করা। ’

হাটহাজারী পৌর হেফাজতের সভাপতি মাওলানা মীর ইদরিসের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী, মুফতি ফখরুল ইসলাম, মাওলানা আবু আহমদ, মাওলানা আনাস মাদানী, মাওলানা আবু তৈয়ব আব্দুল্লাপুরী, মাওলানা কাজী সফি উল্লাহ, মুফতি শেহাব উদ্দীন, মাওলানা জাহাঙ্গীর আলম, মাওলানা হাবীবুল হক বাবু, আব্দুর রহমান চৌধুরী, মাওলানা

মাহমুদ হোসাইন, মাওলানা জাকারিয়া নোমান, মাওলানা আব্দুল ওয়াদুদ নোমানী প্রমুখ।

হাটহাজারীর ডাকবাংলো চত্বরে সমাবেশ শেষে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা ব্যানার, ফেস্টুন ও প্ল্যাকার্ড হাতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়ক, হাটহাজারী বাসস্ট্যান্ড ও হাটহাজারী-রাঙামাটি মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে।


মন্তব্য