kalerkantho

বুধবার । ১৮ জানুয়ারি ২০১৭ । ৫ মাঘ ১৪২৩। ১৯ রবিউস সানি ১৪৩৮।


রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমান্ত হয়ে অবাধে আসছে অস্ত্র

রফিকুল ইসলাম, রাজশাহী   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমান্ত পার হয়ে চোরাচালানের মাধ্যমে অবাধে আসছে অবৈধ অস্ত্র। রাজশাহীর গোদাগাড়ী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলা সীমান্ত এলাকা দিয়ে সাম্প্রতিককালে ব্যাপক হারে অবৈধ অস্ত্র আমদানির পরিমাণ বেড়েছে বলে একাধিক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সূত্র নিশ্চিত করেছে। এর মধ্যে শিবগঞ্জ সীমান্ত হয়েই আসছে অন্তত ৯০ শতাংশ অস্ত্র। মূলত মাদক ব্যবসায়ীরাই এসব অস্ত্র ব্যবসার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছে। মাদক আমদানির পাশাপাশি তারা বিদেশি পিস্তল, রিভালবারসহ নানা ধরনের মারণাস্ত্র সীমান্তের ওপার ভারত থেকে আমদানি করে আনছে। আর সেগুলো রাজশাহী হয়ে ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে। পথিমধ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী খবর পেয়ে কিছু অস্ত্র উদ্ধার এবং এর সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারও করছে। কিন্তু এর পরও থেমে নেই অস্ত্র আমদানির মাত্রা। বরং দিন দিন বেড়েই চলেছে বলে দাবি করেছেন রাজশাহীর একাধিক গোয়েন্দা সূত্র। বিশেষ করে ছোট অস্ত্র আমদানির হার বেড়েছে কয়েক গুণ।

রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের বিভিন্ন থানা সূত্র মতে, গত বছর এ দুটি জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে কেবল র‌্যাব রাজশাহী-৫-এর সদস্যরাই ৯৪টি অস্ত্র উদ্ধার করেন। এর মধ্যে ৬০টিই ছিল চাঁপাইনবাবগঞ্জ এলাকা থেকে। অস্ত্রগুলোর মধ্যে বিদেশি পিস্তল ৬৪টি, রিভলবার ১৩টি, শুটারগান ১৩টি, পাইপগান একটি এবং এলজি তিনটি। চলতি বছর র‌্যাব-৫-এর সদস্যরা এরই মধ্যে ৩৮টি অস্ত্র উদ্ধার করেছেন। যার মধ্যে ২৬টিই উদ্ধার করা হয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ এলাকা থেকে। উদ্ধারকৃত অস্ত্রগুলোর মধ্যে রয়েছে বিদেশি পিস্তল ২৯টি, রিভলবার একটি, শুটারগান একটি, এসএমজি একটি, রাইফেল দুটি, ব্যাজএমটি এয়ারক্রাফট গান একটি, হেভি মেশিন দুটি এবং পাইপগান একটি।  

সর্বশেষ গত রবিবার সকালে আটটি বিদেশি পিস্তল, ১৬টি ম্যাগাজিন ও ১৪০ রাউন্ড গুলিসহ আলাউদ্দিন (৫০) নামে এক অস্ত্র ব্যবসায়ীকে আটক করে র‌্যাব। তিনি শিবগঞ্জের ভারতীয় সীমান্তসংলগ্ন গ্রাম চাঁপাটিলার বাসিন্দা। অস্ত্রগুলো নিয়ে বাইসাইকেলে চেপে আলাউদ্দিন সোনামসজিদ-চাঁপাইনবাবগঞ্জ সড়ক হয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জে পৌঁছে দিতে যাচ্ছিলেন। এ সময় র‌্যাব তাঁকে আটক করে।

অস্ত্র উদ্ধার সম্পর্কে জানতে চাইলে র‌্যাব-৫ চাঁপাইনবাবগঞ্জের ক্যাম্প কমান্ডার মেজর আবদুস সালাম কালের কণ্ঠকে জানান, রাজশাহী অঞ্চলে যেসব অস্ত্র তাঁরা উদ্ধার করেছেন বা করছেন সেগুলোর মধ্যে অধিকাংশই চাঁপাইনবাবগঞ্জ এলাকায়। এগুলোর বহনকারী বা ব্যবসায়ী যাদের আটক করা হয়েছে তাদের অধিকাংশের বাড়ি আবার শিবগঞ্জ এলাকায়। ফলে অস্ত্রগুলো কোন রুট দিয়ে আসছে, তদন্ত করে যাচ্ছে র‌্যাব।

ওই কর্মকর্তা আরো বলেন, ‘অস্ত্রের রুটের সন্ধানে র‌্যাব কাজ করে যাচ্ছে। এটি উচ্চতর তদন্তের বিষয়। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কোন রুট দিয়ে অস্ত্র আসছে—তা বলা ঠিক হবে না। ’

অন্যদিকে শিবগঞ্জ থানা সূত্রমতে, গত বছর শিবগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে র‌্যাব, বিজিবি ও পুলিশ মিলে মোট ৬১টি অস্ত্র উদ্ধার করে। এর মধ্যে অধিকাংশই ছিল বিদেশি পিস্তল। চলতি বছর এরই মধ্যে ২৩টি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে শিবগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে। যেগুলো সবই এসেছে সীমান্ত এলাকা হয়ে।

তবে পুলিশের একাধিক গোয়েন্দা সূত্র নিশ্চিত করেছে, রাজশাহী অঞ্চলে সাম্প্রতিককালে যেসব অস্ত্রের চালান ধরা পড়ছে, তার সবই ভারতীয় সীমান্ত হয়ে বাংলাদেশে এসেছে। এর মধ্যে অধিকাংশই আসছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমান্ত এলাকা দিয়ে। আর কিছু অস্ত্র আসছে রাজশাহীর গোদাগাড়ী সীমান্ত হয়ে।


মন্তব্য