kalerkantho


ড. মিজানুর বললেন

ড. আতিউর বলির পাঁঠা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলির পাঁঠা হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, আতিউর রহমানের মতো সৎ মানুষের পদত্যাগে কোনো সমাধান আসবে না।

এ প্রসঙ্গে এর আগে চার হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎসহ একটি ব্যাংকের দেউলিয়া হওয়ার ঘটনায় কাউকে এখনো শাস্তি না দেওয়ার কথা তুলে ধরেন তিনি।

সারা দেশে শিশু হত্যা-নির্যাতন রোধে গতকাল শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে খেলাঘর ঢাকা মহানগর শাখা আয়োজিত মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মিজানুর রহমান এ কথা বলেন। মানববন্ধনে বক্তব্য দেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় চেয়ারপারসন ড. মাহফুজা খানম, সাধারণ সম্পাদক মোখলেছুর রহমান সাগর, প্রেসিডিয়াম সদস্য ডা. আবু সাঈদ, ঢাকা মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক তৌহিদ রিপন প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি সোমেন পোদ্দার।

মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, প্রতিষ্ঠানের যেকোনো পর্যায়ে অপরাধ হলে তার দায় ওই প্রতিষ্ঠানের সর্বোচ্চ ব্যক্তিকে নিতে হবে। সৎ ও নিষ্ঠাবানদের বিদায় করে বিচার করা হয়েছে ভাবলে ভুল হবে। তিনি আরো বলেন, কোটি কোটি টাকা লুট হয়ে গেলেও ‘এটা তেমন কিছু নয়’ বলতে  শোনা যায়। সমাজে অনেক বড় ধরনের অপরাধ করেও কিছু মানুষ পার পেয়ে যায়, কিন্তু ভদ্র মানুষকে চলে যেতে হয়। শুধু দু-একজন ব্যক্তিকে বলির পাঁঠা বানিয়ে দায়িত্ব শেষ করার চেষ্টা করা হলে জাতি কখনো মেনে নেবে না বলে মন্তব্য করেন মিজানুর রহমান।

এ ছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন ডেপুটি গভর্নর নিয়োগের জন্য সার্চ কমিটি করা প্রসঙ্গে ড. মিজান বলেন, একজন গভর্নর যখন চলে যান, তাত্ক্ষণিক গভর্নর নিয়োগ দেওয়া হয়। যিনি প্রধান (গভর্নর) তাঁর নিয়োগের ক্ষেত্রে সার্চ কমিটি নেই, কিন্তু যাঁরা ডেপুটি তাঁদের নিয়োগে সার্চ কমিটি—এটা আশ্চর্যজনক ও বড় হাস্যকর। এর উদ্দেশ্য কী, এর পেছনে কী কারণ আছে, তা জাতি জানতে চায় বলে দাবি করেন তিনি।


মন্তব্য