kalerkantho


অনিয়মের অভিযোগ

চিতলমারী ইউএনওকে প্রত্যাহারের নির্দেশ নির্বাচন কমিশনের

বাগেরহাট প্রতিনিধি   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অনিয়ম ও পক্ষপাতিত্বের অভিযোগে বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. ফরিদ হোসেনকে প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। গতকাল শুক্রবার এ-সংক্রান্ত একটি চিঠি পেয়েছেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. রুহুল আমিন মল্লিক। তবে জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর আলম জানিয়েছেন, গতকাল বিকেল পর্যন্ত কোনো চিঠি তিনি পাননি।

বাগেরহাট জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. রুহুল আমিন মল্লিক জানান, নির্বাচন কমিশন থেকে চিতলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে প্রত্যাহারসংক্রান্ত নির্দেশে চিঠি তাঁর হাতে পৌঁছেছে। প্রার্থীদের পক্ষ নিয়ে নির্বাচনীকাজে নিয়োজিত কর্মকর্তাদের হুমকি এবং ক্ষমতার অপব্যহারসহ নানা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ফরিদ হোসেনকে প্রত্যাহারের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, চিতলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বদলিসংক্রান্ত কোনো পত্র শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত তাঁর হাতে পৌঁছায়নি।

চিতলমারী উপজেলার সাতটি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। ওই প্রার্থীদের পক্ষ নিয়েই ইউএনও নির্বাচনী কর্মকর্তাদের ‘হুমকি ও অবৈধ নির্দেশ’ দেন বলে অভিযোগ উঠেছে। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা কমিশনে অভিযোগ করেন, ইউএনও ফরিদের চাপে তাঁদের সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।


মন্তব্য