kalerkantho


আগুন বোমা গুলি সংঘর্ষে আহত ৬৬

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



আগুন বোমা গুলি সংঘর্ষে আহত ৬৬

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সামনে রেখে বিভিন্ন স্থানে সহিংসতা আরো বাড়ছে। একই সঙ্গে গতকাল বৃহস্পতিবারও কয়েক স্থানে নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর, প্রতিপক্ষের কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা, আগুন, ভাঙচুর, বোমা বিস্ফেরণ ও গুলির ঘটনা ঘটেছে।

এসব ঘটনায় ৬৬ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

এদিকে দলীয় সিদ্ধান্ত্ত অমান্য করে নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় বরিশালে জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগে গণবহিষ্কার শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে। গত দুই দিনে জেলা ও উপজেলা থেকে ৭৬ জনকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। দ্বিতীয় ধাপে আরো শতাধিক বহিষ্কার করা হবে বলে একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে। বিস্তারিত বিভিন্ন স্থান থেকে পাঠানো আমাদের আঞ্চলিক অফিস, নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে—

যশোরের মণিরামপুরে আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে নির্বাচনী প্রতিপক্ষ প্রার্থীর অফিস ভাঙচুর, বোমা বিস্ফোরণ, মারধর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। এতে আওয়ামী লীগ প্রার্থীসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। এসব ঘটনায় মণিরামপুর থানায় চারটি মামলা করা হয়েছে। গত বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার চালুয়াহাটি ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে চালুয়াহাটি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আবুল ইসলামের নেংগুড়াহাট বাজারের নির্বাচনী অফিসে হামলা চালিয়েছে দলের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল হামিদ সরদারের কর্মী-সমর্থকরা।

এ সময় নির্বাচনী অফিস, বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর করা হয়। এতে দলীয় প্রার্থীসহ ১৪-১৫ জন আহত হয়। এ সময় হামলাকারীরা ৯-১০টি বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। আহতদের মধ্যে একজনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার ধানীসাফা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকরা স্বতন্ত্র প্রার্থী রফিকুল ইসলামের ছয় সমর্থককে পিটিয়ে আহত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় স্বতন্ত্র প্রার্থীর ছয়টি মোটরসাইকেলও ভাঙচুর করা হয়। গতকাল দুপুরে সাফা বাজার এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

পটুয়াখালীর দুটি ইউনিয়নে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পটুয়াখালী সদর উপজেলার মরিচবুনিয়া ইউনিয়নে বিএনপি প্রার্থী বশির আহমেদের গণসংযোগে হামলা করেছে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন মৃধার সমর্থকরা। হামলায় ১০ বিএনপিকর্মী আহত হয়েছে। এ সময় তিনটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই ইউনিয়নের গুয়াবাড়িয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

ঝালকাঠিতে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে হামলা, সংঘর্ষ, বোমা বিস্ফোরণ ও প্রচারযন্ত্র ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতাসহ আহত হয়েছে ২০ জন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বোমা ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে। জানা যায়, রাজাপুর উপজেলার মঠবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মোস্তফা কামাল সিকদারের মোটরসাইকেলবহরে হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় হামলাকারীরা পাঁচটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে।

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ১০ নম্বর সয়দাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বর্তমান চেয়ারম্যান সমর্থক ও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে কয়েকজনকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় বর্তমান আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান সপ্তিক আহমদ মিঠুর বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে প্রতিপক্ষরা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে টিয়ার গ্যাসের শেল ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে এলাকায় বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বাগেরহাটের শরণখোলা ও মোরেলগঞ্জ উপজেলায় বিএনপি মনোনীত দুজন চেয়ারম্যান প্রার্থীর বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লটুপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বিকেলে শরণখোলা উপজেলার খোন্তাকাটা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মতিয়ার রহমানের বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটে। এর আগে সকালে পার্শ্ববর্তী উপজেলা মোরেলগঞ্জের রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নে বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী খুরশিদ আলম কলির বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর এবং বাড়ির মালপত্র লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

বরিশালে আওয়ামী লীগে গণবহিষ্কার : বরিশালে জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগে শুরু হয়েছে গণবহিষ্কার। গত দুই দিনে জেলা ও উপজেলা থেকে ৭৬ জনকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। দ্বিতীয় ধাপে আরো শতাধিক বহিষ্কার করা হবে। দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়া ও বিদ্রোহীদের পক্ষে কাজ করায় গত বুধবার রাতে জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বরিশাল-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট তালুকদার মোহাম্মদ ইউনুস বহিষ্কারের বিষয় নিশ্চিত করেছেন।

রাত ৮টায় অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বরিশাল-১ আসনের সদস্য সদস্য আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ। নগরের বান্দ রোডের স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা কমিটির নেতারাসহ ১০ উপজেলার সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, দলীয় উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র ও মনোনীত প্রার্থীরা।


মন্তব্য