kalerkantho


ফ্লাইওভার থেকে রড পড়ে যুবকের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ফ্লাইওভার থেকে রড পড়ে যুবকের মৃত্যু

চারপাশ অরক্ষিত রেখে মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের কাজ চলাকালে গতকাল ওপর থেকে রড পড়ে প্রাণ হারান এক নির্মাণ শ্রমিক। ঘটনাস্থল তদন্তে পুলিশ। ছবি : কলের কণ্ঠ

রাজধানীর ইস্কাটন এলাকায় নির্মাণাধীন মৌচাক-মগবাজার ফ্লাইওভার থেকে পড়া লোহার রডের আঘাতে এক নির্মাণ শ্রমিক মারা গেছেন। তাঁর নাম ইমন (২৮)। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। রড পড়ায় তাঁর মাথা থেঁতলে যায়। ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়।

ইমনের বাড়ি গাইবান্ধায়। বাবা কবির হোসেনের সঙ্গে তিনি উত্তরার আশকোনা এলাকায় থাকতেন।

রমনা থানার ওসি মশিউর রহমান জানান, নির্মাণাধীন মৌচাক-মগবাজার ফ্লাইওভারের নিচ দিয়ে যাওয়ার সময় মাথায় রড পড়ে ইমনের মৃত্যু হয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা প্রক্রিয়াধীন।

ঘটনার প্রতক্ষ্যদর্শী পলাশ মোড়ল বলেন, ‘আমি বাজার করে বাসায় ফিরছিলাম। এ সময় হঠাৎ চিত্কার শুনে এগিয়ে গিয়ে দেখি এক লোক পড়ে আছে। মাথায় রড পড়ে মাথা থেঁতলে গেছে তার। লোকটি ফ্লাইওভারের নিচেই কাজ করছিল বলে শুনেছি। ’

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, ফ্লাইওভারের নিচে কাজ করা শ্রমিক ও সেখান দিয়ে চলাচল করা পথচারীদের জন্য নিরাপত্তার কোনো ব্যবস্থা নেই। নির্মাণকাজের সময় নিরাপত্তার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এ কারণেই প্রাণ গেছে ইমনের। রাজধানীর বেশির ভাগ নির্মাণকাজ এভাবেই চলে।

ইস্কাটনের স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করে বলেন, শ্রমিক ও পথচারীদের জন্য নিরাপত্তার কোনো ব্যবস্থা না রেখেই ফ্লাইওভারের কাজ চলছে। কয়েক দিন আগে একই স্থানে ফ্লাইওভার থেকে লোহার চাকতি পড়েছিল। সে সময় হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও নিচে রাখা একটি মোটরসাইকেল ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

রাহাত হোসেন নামের এক যুবক বলেন, ‘ফ্লাইওভারের মতো ইস্কাটনের বহুতল ভবনগুলোতেও কোনো নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেই। এ রাস্তা দিয়ে হাজার হাজার মানুষ যাচ্ছে। আজ শ্রমিক মরেছে, কাল পথচারী মরবে। ’


মন্তব্য