kalerkantho


২০ কেজি সোনা পাচার

সেই ‘ডোর টু ডোর’ মালিকসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



চট্টগ্রামে ইলেকট্রনিক পণ্যের আড়ালে ২০ কেজি সোনা পাচারের ঘটনায় সেই ‘ডোর টু ডোর’ কার্গো মালিক মো. জসিম উদ্দীন ও ফরিদ আলমসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার চট্টগ্রাম আদালতের প্রসিকিউশন শাখায় অভিযোগপত্রটি জমা দেওয়া হয়। আজ বুধবার মামলার ধার্য তারিখে অভিযোগপত্রটি মহানগর হাকিম আদালতে উপস্থাপন করার কথা রয়েছে।

অভিযোগপত্রটি দাখিল করেন চট্টগ্রাম নগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) পরিদর্শক কেশব চক্রবর্তী।

অভিযোগপত্রভুক্ত অন্য সাত আসামি হলেন ডোর টু ডোর কার্গো সার্ভিস ও এসি মেলার মালিক মো. জসীম উদ্দিনের ভাই এমরান, ভবতোষ বিশ্বাস রানা, গিয়াস উদ্দিন টিটু, সিঅ্যান্ডএফ প্রতিষ্ঠান আমিন ব্রাদার্সের মালিকদের একজন ফজলুল হক, রুবেল, মো. শোয়েব ও আবু তাহের।

এর মধ্যে সাতজন এজহারভুক্ত এবং ফজলুল হক ও তাহের এজহারবহির্ভূত আসামি। মামলার তদন্তে তাঁদের নাম এসেছে।

তদন্তকারী কর্মকর্তা কেশব চক্রবর্তী জানান, বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫(খ), ২৫(গ) ও শুল্ক আইনের ১৫৪(১) ও ১৫৪(১৪) ধারায় অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হয়েছে। তদন্তের বিষয়ে তিনি জানান, আমিন ব্রাদার্সের মালিক ফজলুল হক ওই মালগুলো ছাড় করান। আর আবু তাহের ও ফরিদের নাম ব্যবহার করে সেগুলো বিদেশ থেকে আনা হয়। অভিযোগপত্রে ১৯ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে।

অভিযোগপত্রের তথ্য অনুযায়ী, গত বছরের ৭ এপ্রিল রাত থেকে ৯ এপ্রিল পর্যন্ত টানা অভিযান চালিয়ে দুবাই থেকে ইলেকট্রনিক পণ্যের আড়ালে কৌশলে পাচার করে দেশে আনা সোনার বার ও গয়না উদ্ধার করে সদরঘাট থানার পুলিশ। ওই ঘটনায় সদরঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।


মন্তব্য