kalerkantho

26th march banner

বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবস পালিত

অ্যান্টিবায়োটিকের যৌক্তিক ব্যবহার নিশ্চিতের তাগিদ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



অ্যান্টিবায়োটিকের যথেচ্ছ ব্যবহার মানুষের জন্য বড় বিপদ ডেকে আনছে বলে উল্লেখ করে এর পরিমিত ব্যবহার নিশ্চিত করার তাগিদ দেওয়া হয়েছে বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবসে। গতকাল মঙ্গলবার দিবসটি উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, মানব ও প্রাণিদেহে অ্যান্টিবায়োটিকের অধিক ব্যবহার বন্ধ করতে হবে, মানবদেহে ব্যবহূত অ্যান্টিবায়োটিক প্রাণিদেহে ব্যবহার করা যাবে না এবং নিয়ম মেনে অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করতে হবে।

এ দেশে যেসব প্রতিষ্ঠান সামর্থ্য না থাকা সত্ত্বেও অ্যান্টিবায়োটিক উত্পাদনের অনুমতি পেয়েছে তাদের লাইসেন্স বাতিল করার পরামর্শ দেওয়া হয় অনুষ্ঠানে। এতে বলা হয়, অ্যান্টিবায়োটিক যথেচ্ছ ব্যবহার করলে জীবাণুর মধ্যে প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে উঠবে। তখন সাধারণ রোগেরও চিকিৎসা সম্ভব হবে না।

বিশ্ব ভোক্তা অধিকার দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য ‘অ্যান্টিবায়োটিক যুক্ত খাদ্যকে না বলুন’। গতকাল কারওয়ান বাজারে টিসিবি ভবনে ওই আলোচনা সভার আয়োজন করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ও কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব)।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, ভোক্তাদের অধিকার সংরক্ষণে সরকার অনেক কাজ করেছে। ২০০৯ সালে ভোক্তা অধিকার আইন হওয়ার পর এখন মানুষ অধিকার ক্ষুণ্ন হলে নালিশ করতে পারে। অভিযোগ জানালে ব্যবস্থাও নেওয়া হয়। আইনটি যুগোপযোগী করতে সংশোধনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওষুধ প্রযুক্তি বিভাগের অধ্যাপক আ ব ম ফারুক। তিনি বলেন, ‘নতুন নতুন অ্যান্টিবায়োটিক আবিষ্কার হলে মানুষ আশার আলো দেখতে পারত।


মন্তব্য