kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ জানুয়ারি ২০১৭ । ৪ মাঘ ১৪২৩। ১৮ রবিউস সানি ১৪৩৮।


চট্টগ্রামে পুরো পরিবার দুর্ঘটনায় দুই ছেলেসহ মা নিহত

লক্ষ্মীপুরে মেয়ে, নাতিসহ বৃদ্ধার মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম ও লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

১৪ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে পিকআপের চাপায় অটোরিকশা আরোহী একটি পরিবারের দুই ছেলেসহ মা নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন মেয়েসহ বাবা। দুর্ঘটনায় অটোরিকশাচালকও আহত হন। গতকাল রবিবার সকালে পুরনো ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বারইয়ারহাট পৌরসভার তিতার বটতলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। অটোরিকশা আরোহী ওই পরিবারটি মিরসরাই উপজেলার ইমামপুর গ্রামের বাসিন্দা।

এদিকে লক্ষ্মীপুরে সিএনজি অটোরিকশার সঙ্গে লেগুনার সংঘর্ষে একই পরিবারের তিনজন নিহত হয়েছে।   মিরসরাইয়ে নিহতরা হলো সাহেদা আক্তার (৩৩), ছেলে আব্দুল্লাহ আল সাইমুম (৯) ও সাইদুল ইসলাম (১০ মাস)। আহতরা হলো সাহেদার স্বামী দিদারুল ইসলাম (৪০), মেয়ে ইভা আক্তার (৫) ও অটোরিকশাচালক (অজ্ঞাত)। আহতরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে।

নিহতের আত্মীয় জামাল উদ্দিন দুখুর বরাত দিয়ে স্থানীয় সাংবাদিক এনায়েত হোসেন মিঠু জানান, মিরসরাইয়ের টেকেরহাট বাজারের ব্যবসায়ী দিদারুল আলম কয়েক দিন আগে সপরিবারে টাঙ্গাইলে বেড়াতে গিয়েছিলেন। সেখানে তাঁর ফুফুর বাড়ি। বেড়ানো শেষে টাঙ্গাইল থেকে ঢাকা হয়ে মিরসরাই ফিরছিলেন তাঁরা। যাত্রীবাহী বাসে তাঁরা বারইয়ারহাট পৌর বাজারে পৌঁছে একটি অটোরিকশাযোগে বাড়ি যাচ্ছিলেন। পথে মাছ বহনকারী একটি পিকআপ তাঁদের অটোরিকশাকে চাপা দেয়। দুর্ঘটনায় জোরারগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন জোরারগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আনোয়ার হোসেন। লক্ষ্মীপুরে নিহতরা হলো মা নূরবানু (৫০) ও মেয়ে রৌশন আরা বেগম (৩০) এবং নূরবানুর নাতি স্কুল ছাত্র শাহরিয়ার (৮)। এলাকাবাসী জানায়, শনিবার বিকেলে লক্ষ্মীপুর-রামগতি সড়কের ভবানীগঞ্জ কলেজ এলাকায় লেগুনা ও অটোরিকশার সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই স্কুল ছাত্র শাহরিয়ার মারা যায়। আহত হয় আরো অন্তত ১০ যাত্রী। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। তাদের মধ্যে ঢাকায় নেওয়ার পথে কুমিল্লায় নূরবানু ও রৌশন আরা মারা যান।


মন্তব্য