হাসিনা ভদ্রতা জানেন না : খালেদা জিয়া-333892 | খবর | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৫ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৭ জিলহজ ১৪৩৭


মহিলা দলের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়

হাসিনা ভদ্রতা জানেন না : খালেদা জিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘ভদ্র ব্যবহার’ ও ‘ভদ্র ভাষা’য় কথা বলতে জানেন না। তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ বলেন আর হাসিনা বলেন এরা ভালো আচরণ করতে জানে না। এদের মধ্যে কোনো সুন্দর ভাষা নেই। যাদের মুখে ভদ্র ভাষা নেই, তারা মানুষের সঙ্গে কেমন করে ভদ্র সুন্দর আচরণ করবে?’

গতকাল মঙ্গলবার রাতে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের নেতাদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন।

মহিলা দলের নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়াকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

গত সোমবার ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগ আয়োজিত সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী বিএনপির নেতৃত্ব নির্বাচন নিয়ে সমালোচনা করেন। তিনি বলেছেন, বিএনপির শীর্ষ দুই পদে আসামিকে বসানো হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের প্রতি ইঙ্গিত করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘হাসিনা এমন সব অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করে সেগুলো আমরা মনে করি, যে সেটা আমাদের সকলের জন্য লজ্জার ও অপমানের। কেন? জোর জবরদখল করে হলেও তিনি প্রধানমন্ত্রীর পদটা দখল করে আছেন। সেখানে আমরা দেশের নাগরিক হিসেবে সকলে অসম্মানিত বোধ করি।’

নারী দিবসে খালেদা জিয়া দেশের নারীদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন অভিযোগ করেন, ‘এই আন্তর্জাতিক নারী দিবসেও আমাদের প্রোগ্রাম করতে দেওয়া হয় না। এখন আমাদের জন্য বড় হল পাওয়া দুষ্কর। কোনো হলও দিতে চায় না, আমরা প্রোগ্রাম করতে পারি না। দেশটাকে অবরুদ্ধ অবস্থায় রেখেছে। গণতন্ত্রহীন অবস্থায় এভাবে  দেশ চলতে পারে না।’ তিনি মনে করেন, গণতন্ত্র না থাকায় প্রতিটি ক্ষেত্রে অবনতি হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নারীদের ওপর নির্যাতনের উদাহরণ টেনে বলেন, ‘এটা যখন পত্রিকায় আসে, তখন শুধু আমাদেরই লজ্জা করে। বিদেশিরা এগুলো নিয়ে নানারকম কটূক্তি করে, সমালোচনা করে—এটা মোটেই  কোনো ভালো জিনিস নয়।’

মহিলা দলের শুভেচ্ছার জবাব দিতে গিয়ে খালেদা জিয়া বলেন, ‘এত ফুল এনেছেন, মহিলারা ফুলের মতোই সুন্দর ও পবিত্র।’ নারীদের সম্মান দিয়ে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের মর্যাদা রক্ষা করার জন্য আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে নারী সাংবাদিকদের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘আজকের এই অনুষ্ঠানটিতে মহিলারাই আছেন। আমি পুরুষ-ছেলে কাউকে এলাউ করিনি। কেবলমাত্র মহাসচিব আছেন। দেখতে পাচ্ছি সাংবাদিক ভাইদের। কিছু কিছু মহিলা সাংবাদিক দেখতে পাচ্ছি। আমরা মনে করি এই  পেশায় আরো বেশি করে মহিলাদের আসা উচিত, যাঁরা এসব অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন।’

অনুষ্ঠানে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, মহিলা দলের সভানেত্রী নুরী আরা সাফা, সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা বক্তব্য দেন। এ সময়ে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও উপস্থিত ছিলেন।

এরপর বিএনপি এবং এর সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা ‘চেয়ারপারসন’ পদে পুনর্নির্বাচিত হওয়ায় খালেদা জিয়াকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য রাজনৈতিক শিষ্টাচারে পড়ে না : ফখরুল

বিএনপির শীর্ষ দুই পদে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের পুনর্নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া বক্তব্যের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্য রাজনৈতিক শিষ্টাচারের মধ্যে পড়ে না বলে মন্তব্য করেন তিনি।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে মহিলা দলের উদ্যোগে একটি শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রা শুরুর আগে দেওয়া সংক্ষিপ্ত সমাবেশে ফখরুল এ মন্তব্য করেন। ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে সোমবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কাকে নির্বাচিত করল? দুজনই আসামি, একজন এতিমের টাকা চুরি করার মামলার আসামি, আরেকজন তো ২১ আগস্ট মামলার পলাতক আসামি, তার নাম ইন্টারপোলে ওয়ান্টেড তালিকায় আছে।’

মন্তব্য