kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নতুন মোড়কে যাত্রা শুরু টেলিটকের

বিশেষ প্রতিনিধি   

৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



নতুন লোগো নৌকার পাল আর ‘স্বপ্ন হাসি মুখের’ স্লোগান নিয়ে নতুন উদ্যমে যাত্রা শুরু করল রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটির নবরাত্রি হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে টেলিটকের নতুন লোগো উন্মোচন করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান টেলিকম কম্পানি হিসেবে টেলিটককে প্রতিষ্ঠিত করতেই এই রি-ব্র্যান্ডিং এবং নতুন লোগো উন্মোচন। এই পরিবর্তনের মাধ্যমে নতুন কর্মোদ্দীপনায় টেলিটক প্রতিযোগিতামূলক বাজারের উপযুক্ত হয়ে দাঁড়াবে। ’ 

টেলিটকের নেটওয়ার্ক আরো বিস্তৃত করা হবে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী মে মাসের মধ্যে টেলিটকের এক হাজার ৫০০ থ্রিজি ও এক হাজার ৭০০টি টুজি বিটিএস স্থাপন করা হবে। ’

টেলিটকের চেয়ারম্যান এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব ফয়জুর রহমান চৌধুরী বলেন, ‘টেলিটক না হলে আমাদের হয়তো এখনো মিনিটে ৬ টাকা ৯০ পয়সা এবং তার সঙ্গে ভ্যাটের টাকা দিয়ে কথা বলতে হতো। সময়ের সঙ্গে টেলিকম প্রযুক্তিকে মানুষের আরো কাছাকাছি নিয়ে যাওয়াই টেলিটকের মূল উদ্দেশ্য। ’

বিটিআরসি চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ বলেন, টেলিটকের নতুন যাত্রায় কয়েকটি বিষয় নজর রাখতে হবে। টেলিটককে নিরবচ্ছিন্ন ভয়েস ও ডাটা নেটওয়ার্ক, কোয়ালিটি অব সার্ভিস, আকর্ষণীয় অফার এবং গ্রাহকসেবা নিশ্চিত করতে হবে। তাহলে এই নতুন লোগো সার্থক হবে।

নতুন লোগো সম্পর্কে জানানো হয়, টেলিটকের মূল উদ্দেশ্য মানুষের সঙ্গে মানুষের যোগাযোগ সহজ করা। বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের ঐতিহ্যকেও ধারণ করতে চায় টেলিটক। এ কারণেই বেছে নেওয়া হয়েছে বাতাস ভরা নৌকার পাল। এ পাল নতুন প্রযুক্তির পাল।

টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গিয়াসউদ্দিন আহমেদ, বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান আহসান হাবিব খানসহ বেসরকারি অপারেটরদের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে অভিনেতা জাহিদ হাসানকে টেলিটকের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর ঘোষণা করা হয়। বাংলা ব্যান্ড ‘জলের গান’ এবং কণ্ঠশিল্পী কোনালের সাংস্কৃতিক পরিবেশনার মধ্য দিয়ে লোগো উন্মোচন ও রি-ব্র্যান্ডিং অনুষ্ঠান শেষ হয়।


মন্তব্য