kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


১১ বছর আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

আসামি উপজেলা চেয়ারম্যান পলাতক

বাগেরহাট প্রতিনিধি   

৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা এস এম মাহফুজুর রহমানের বিরুদ্ধে এক নারীকে প্রায় ১১ বছর আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা হয়েছে। গত সোমবার রাতে ওই নারী মামলাটি করার পর থেকে উপজেলা চেয়ারম্যান পলাতক রয়েছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ওই নারীর ডাক্তারি পরীক্ষার প্রক্রিয়া চলছে। তিনি বর্তমানে খুলনায় পুলিশের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে রয়েছেন।

কচুয়া থানার ওসি মো. শমসের আলী কালের কণ্ঠকে বলেন, বাদী অভিযোগ করেছেন যে ২০০৫ সালে তাঁর বাবা বাড়ি থেকে অন্যত্র চলে যাওয়ার পর তাঁরা অসহায় হয়ে পড়েন। এ সুযোগে এস এম মাহফুজুর রহমান তাঁদের বাড়িতে গিয়ে তাঁকে কাজ দেওয়ার কথা বলে কচুয়া উপজেলার সাইনবোর্ড বাজার এলাকায় চেয়ারম্যানের বিসমিল্লাহ ভবনে নিয়ে আসেন। তখন থেকেই তাঁকে আটকে রাখা হয়। ওই বছরের ৬ জুন মাহফুজুর রহমান তাঁকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এরপর ২১ জুন রাতে মাহফুজুর রহমান তাঁর বাড়ির দোতলায় তাঁকে ধর্ষণ করেন। মামলায় আরজিতে বাদী বলেছেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান একপর্যায়ে তাঁকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে বছরের বছর ধরে ধর্ষণ করে আসছিলেন। গত ৭ ডিসেম্বর রাতে ওই বাড়ি থেকে তিনি পালিয়ে যান।


মন্তব্য