পটুয়াখালীতে আ. লীগের দুই পক্ষের-333394 | খবর | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বুধবার । ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৩ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৫ জিলহজ ১৪৩৭


পটুয়াখালীতে আ. লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২০

পটুয়াখালী ও মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি   

৮ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



পটুয়াখালী সদর উপজেলার মরিচবুনিয়া ইউনিয়নে নির্বাচনী প্রচারণার সময় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। দলীয় মনোনয়ন পাওয়া এবং বিদ্রোহী প্রার্থীর লোকজনের মধ্যে গতকাল সোমবার বিকেলে এ সংঘর্ষ বাধে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে।

এদিকে নির্বাচনী প্রচারণার সময় গতকাল যশোরের মণিরামপুরে বিএনপির কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলায় দুজন আহত হয়েছে। গতকাল ঢাকুরিয়া ইউনিয়নের জয়পুর কাঁছারিবাড়ী বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মরিচবুনিয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী হিসেবে আছেন দেলোয়ার হোসেন মৃধা। আর দলের বিদ্রোহী প্রার্থী জাকির হোসেন প্যাদা। গতকাল দুই প্রার্থীর লোকজন একই সময় একই এলাকায় প্রচারণায় নামলে সংঘর্ষ বাধে। ঘণ্টাব্যাপী

এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হয়।

এদিকে মণিরামপুরের ঢাকুরিয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে বিএনপি থেকে লড়ছেন বর্তমান চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান। তিনি অভিযোগ করেছেন, গতকাল দুপুরে কাছারিবাড়ী বাজারে তাঁর কর্মী-সমর্থকরা ধানের শীষ প্রতীকের পক্ষে পোস্টার টাঙাচ্ছিল। ওই সময় আওয়ামী লীগ প্রার্থীর লোকজনের সঙ্গে তাদের বাগিবতণ্ডা হয়। একপর‌্যায়ে আওয়ামী লীগের লোকজন বিএনপি কর্মী আব্দুল লতিফ ও আব্দুর রহিমকে মারধর করে।

সংবাদ সম্মেলন : ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছে মণিরামপুর উপজেলা বিএনপি। সেই সঙ্গে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি জানিয়েছে তারা। সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা বিএনপির সভাপতি শহীদ মো. ইকবাল হোসেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ও কর্মী-সমর্থকদের ওপর অব্যাহত

হামলা, ভাঙচুর, মারধর ও মামলার চিত্র তুলে ধরেন।

মন্তব্য