kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ঝড়ে ঢাকায় দুই শিশুর মৃত্যু আহত আরো ১০ জন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ঝোড়োবৃষ্টিতে গতকাল রবিবার ঢাকার রামপুরা ও কেরানীগঞ্জে দেয়াল ধসে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে আরো অন্তত ১০ জন।

এ ছাড়া গাজীপুরে টাওয়ার ধসে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। রেললাইনের ওপর গাছ ভেঙে পড়ে টঙ্গী থেকে উত্তরবঙ্গ ও ময়মনসিংহ রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

নিহত দুই শিশু হলো কারিশমা (৪) ও রিয়া মনি (১১)। তাদের মধ্যে কারিশমা রামপুরার টিভি সেন্টার রোডে ইসলাম টাওয়ারের পাশের একটি টিনশেড বাড়ির বাসিন্দা শামীম হাওলাদারের মেয়ে। রিয়া কামরাঙ্গীরচরের নূর মোহাম্মদের মেয়ে।

আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

রাজধানী : সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ঝোড়োবৃষ্টির সময় রামপুরা টিভি সেন্টার রোডে নির্মাণাধীন ইসলাম টাওয়ারের রেলিংসহ ভিমের কিছু অংশ ভেঙে পাশের টিনশেড বাসায় গিয়ে পড়ে। এতে চাপা পড়ে শিশু কারিশমা।

নিহতের দাদা মিজানুর রহমান বলেন, গুরুতর আহত অবস্থায় কারিশমাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান তার মৃত্যু হয়েছে।

রামপুরা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মনিরুজ্জামান বলেন, নির্মাণাধীন ইসলাম টাওয়ারের মালিক লন্ডনে থাকেন। ঘটনার পর থেকে ভবনের ব্যবস্থাপক মামুন পলাতক রয়েছেন।

এ ছাড়া ঝড়ের সময় মুগদার মানিকনগরে হাসান, বংশালের মালিটোলায় শুভ, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সামনের রাস্তায় ফেরদৌসী বেগম, লালবাগ কাজী রিয়াজ উদ্দিন রোডে জুয়েল ও বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সামনে সালাউদ্দিন নামের একজন আহত হয়েছে।

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) : দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন আগানগর ইউনিয়নের পশ্চিম ইমামবাড়ী নাইম কলোনির দোতলার দেয়াল ধসে মারা গেছে রিয়া মনি। আহতদের মধ্যে আছে আবদুল খালেক সরদার, রেহেনা বেগম, শিশু সুমি ও সবুজ।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, দেয়াল ধসের কারণে কলোনির অন্তত সাতটি ঘর ভেঙে যায়। দেয়ালের নিচে চাপা পড়ে পাঁচ-ছয়জন। তাদের হাসপাতালে পাঠানোর পর চিকিৎসক রিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রিয়ার নানা খালেক সরদার সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার নাতনি বাবা-মায়ের সঙ্গে কামরাঙ্গীরচর থাকত। এক মাস আগে তার মা বিদেশে চলে যাওয়ায় সে আমাদের সঙ্গে ছিল। ’

কেরানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল বাশার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান জানান, দাফনের জন্য রিয়ার পরিবারকে ১০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়েছে।

গাজীপুর : গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার হাসিবুল ইসলাম জানান, বিকেল ৫টার দিকে ঝড়ে টাওয়ারটি ধসে পাশের উচ্চ ভোল্টের বিদ্যুৎ লাইনের ওপর পড়ে। এতে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়।

জয়দেবপুর রেল জংশনের স্টেশন মাস্টার মো. শহিদুল ইসলাম জানান, ধীরাশ্রম রেলস্টেশনের কাছে লাইনের ওপর গাছ ভেঙে পড়ায় কলকাতা থেকে ঢাকাগামী মৈত্রী এক্সপ্রেস ও যমুনা এক্সপ্রেস ট্রেন আটকা পড়ে। গাছ সরানোর পর রাত সোয়া ৮টার দিকে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।


মন্তব্য