kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


দল গড়বেন জিয়ার ভাই

‘বিএনপি ভুল পথে চলছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



রাজনৈতিক দল গঠন করবেন বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ছোট ভাই আহমেদ কামাল। সময়সীমা নির্দিষ্ট না করে তিনি বলেন, এ জন্য বছরখানেক সময় লাগতে পারে।

প্রায় তিন মাস পর গতকাল শনিবার দুপুরে আবারও জনসমক্ষে হাজির হন আহমেদ কামাল। সেখানে এক আলোচনা সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি দল গঠন করার কথা জানান।

সাংবাদিকরা আহমেদ কামালের কাছে রাজনৈতিক দল করবেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘দল তো করবোই, সে জন্যই তো এসেছি। ’ কখন করবেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘যখন করব তখন আপনাদের ডাকব। ’

গত ৪ নভেম্বর কাকরাইলের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে জিয়াউর রহমানের রুহের মাগফিরাত কামনা করে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে আলোচনায় আসেন আহমেদ কামাল। ওই অনুষ্ঠানে বিএনপির অনেক নেতাকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও তাঁরা যাননি।

বিএনপির কাউন্সিলের আগে ‘শহীদ জিয়ার আদর্শ ও বিপন্ন গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার’ শীর্ষক আলোচনা সভার সভাপতি হিসেবে গতকাল আবার আলোচনায় আসেন আহমেদ কামাল। সভায় তিনি লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান। ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে দুপুর ১২টার দিকে আলোচনা সভা শুরু হয়।

সাতষট্টি বছর বয়সে দল গঠন করে এগিয়ে নেওয়া সম্ভব কি না জানতে চাইলে আহমেদ কামাল বলেন, ‘আল্লাহ ভরসা, পারব। আল্লাহ বলেছেন, ‘তুমি চেষ্টা কর, আমি সাহায্য করব। ’

সংস্কারপন্থী হিসেবে পরিচিত বিএনপি নেতা ও সাবেক হুইপ আশরাফ হোসেন গতকালের আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া দিনকালের সাবেক সম্পাদক কাজী সিরাজ, বিকল্প ধারার সাবেক নেতা শেখ শহীদুল ইসলাম, সাবেক সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হোসনে আরা, আইনজীবী প্রদীপ কুমার সরকার প্রমুখ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বিকল্প ধারার নেতা মাহী বি চৌধুরীর আলোচক হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিল বলে একটি সূত্রের দাবি। তবে শেষ পর্যন্ত তিনি যাননি।

সভায় আহমেদ কামাল বলেন, ‘বিএনপির বর্তমান নাজুক অবস্থা দেখে কিছু কথা না বলে পারছি না। মাঝে মাঝে দুঃখ হয় যখন দেখি আমার ভাই শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের আদর্শ-নীতির সঙ্গে বিএনপির অনেক কর্মকাণ্ডের মিল নেই। ’ তিনি বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করা মোটেই সঠিক নয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ জিয়াকে বিতর্কের ঊর্ধ্বে রাখতে হবে। কাদা ছোড়াছুড়ির রাজনীতি থেকে সব দলকে বেরিয়ে আসতে হবে। ’

আহমেদ কামাল বলেন, একটি স্বার্থান্বেষী মহল ও স্বাধীনতাবিরোধী চক্র বিএনপির নেতৃত্বকে এবং বিএনপি চেয়ারপারসনকে ভুল পথে পরিচালিত করার চেষ্টা করছে। এদের কারণে জিয়াউর রহমানের আদর্শে বিশ্বাসী দলের ত্যাগী ও প্রবীণ নেতাদের এবং তৃণমূল নেতাকর্মীদের মাসুল দিতে হচ্ছে। তিনি বলেন, ‘ত্যাগী নেতাকর্মীদের পাশে দাঁড়াতে হবে। তাঁদের মধ্যে যে হতাশার সৃষ্টি হয়েছে আবার সঠিক নির্দেশনা দিয়ে তাঁদের আশাবাদী করতে হবে। আমার ভাইয়ের হাতে গড়া বিএনপিকে সঠিক পথে চালিত করতে এবং তাঁর আদর্শ বাস্তবায়ন করতে একজন সহযোদ্ধা হিসেবে আপনাদের পাশে আছি, থাকব। ’

সরকারের সমালোচনা করে আহমেদ কামাল বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার গণতন্ত্রের কথা বলে, অথচ দেশের কোথাও গণতন্ত্রের লেশমাত্র নেই। মানুষের স্বাধীনভাবে কথা বলার অধিকার নেই। বিরোধী দলের মিটিং-মিছিল করার অধিকার হরণ করা হয়েছে।


মন্তব্য