kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০১৭ । ৬ মাঘ ১৪২৩। ২০ রবিউস সানি ১৪৩৮।


টিকিটের হাহাকার, পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ

চার ঘণ্টা পর বিক্রি শুরু, এক ঘণ্টায় শেষ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



এশিয়া কাপে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার ফাইনাল খেলার টিকিটপ্রত্যাশীদের সঙ্গে রাজধানীর মিরপুরে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। উত্তেজিত জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ছোড়া হলে টিকিট বিক্রি বন্ধ হয়ে যায়। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়। ঘটনাস্থল থেকে কয়েকজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। এর চার ঘণ্টা পর বিক্রি শুরু হলে এক ঘণ্টার মধ্যে সব টিকিট শেষ হয়ে যায়। গতকাল শনিবার সকালে মিরপুর ১০ নম্বর সেকশনের ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের (ইউসিবিএল) সামনে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ সূত্র জানায়, টিকিট কাটতে আসা লোকজন গত শুক্রবার থেকে ব্যাংকের সামনে লাইনে দাঁড়ায়। গতকাল দুপুর ১২টা থেকে ব্যাংক কাউন্টার খোলার কথা ছিল। কিন্তু কয়েক হাজার টিকিটপ্রত্যাশীর বিপরীতে টিকিট কম থাকায় চারদিকে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে তারা ব্যাংকে ইটপাটকেল ছুড়ে মারে। এতে বাধা দিলে সংঘর্ষ বেধে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে ও লাঠিপেটা করে। এতে ১০-১২ জন আহত হয়। ইউসিবিএল সূত্র জানায়, ব্যাংকে টিকিট না আসায় বিক্রি করতে দেরি হয়। এতে ক্রিকেটপ্রেমীরা উত্তেজিত হয়ে ওঠে। বিসিবির সঙ্গে বারবার যোগাযোগ করা হলেও তাদের সাড়া পাওয়া যায়নি। ইউসিবিএলে কর্মরত একজন কর্মকর্তা জানান, সংঘর্ষ থেমে গেলে বিকেল সোয়া ৪টার দিকে পুলিশের সহায়তায় টিকিট বিক্রি শুরু করা হয়। ব্যক্তিপ্রতি একটি করে টিকিট দেওয়া হয়। এর পরও এক ঘণ্টার মধ্যেই শেষ হয়ে যায় টিকিট। এ খবর পেয়ে উত্তেজিত হয়ে ওঠে টিকিটপ্রত্যাশীরা। দ্বিতীয় দফায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় তাদের।

মিরপুর থানার ওসি ভূঁইয়া মাহবুব হোসেন জানান, বিক্রি শুরুর আগেই ব্যাংকে ইটপাটকেল নিক্ষেপ এবং সড়কে গাড়ি ভাঙচুর শুরু করে টিকিটপ্রত্যাশীরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে তাঁরা লাঠিপেটা করেন। এ ঘটনায় ১০-১২ জনকে আটক করা হলেও পরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। আহত কয়েকজনকে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র রাহাত খান বলেন, ‘শুক্রবার লাইনে দাঁড়াই। সারা রাত জেগে ছিলাম। গতকাল সকালে সংঘর্ষ শুরু হলেও লাইন ছেড়ে যাইনি। বিকেল ৪টার পর একটি টিকিট পেয়ে সব কষ্ট দূর হয়ে গেছে। ’ তবে তিনি অভিযোগ করেন, কালোবাজারিরা ১৫০ টাকার টিকিট দুই হাজার টাকায় বিক্রি করছে।


মন্তব্য