kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ফিটনেস

ওজন কমাতে মেনে চলুন নিয়ম

৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ওজন কমাতে মেনে চলুন নিয়ম

উচ্চতার তুলনায় বেড়ে যাচ্ছে শরীরের ওজন। ভুঁড়িটাও কোনো সতর্ক সংকেত ছাড়াই সামনে যেতে শুরু করেছে।

তারই ধারাবাহিকতায় চলাচলে আগের মতো আর স্বাচ্ছন্দ্য নেই। এমনি সময় একদিন শুরু হয় শরীর নিয়ে সহকর্মীদের বিরক্তিকর বাক্যবাণ। ওজন কমানোর প্রচেষ্টা শুরু তখনই। শুধু যে এ কারণেই ওজন কমানোর লড়াই শুরু তা নয়, অতিরিক্ত ওজন স্বাস্থ্যের জন্যও হুমকি। এমনকি জীবনের জন্যও। হূদরোগ তো আছেই, প্রোস্টেট ক্যান্সারও হয়ে যেতে পারে আপনার সঙ্গী। তবে ওজন কমানোর চেষ্টাটা হতে হবে সত্যিকার অর্থে। মেনে চলতে হবে নিয়ম-কানুন। এমনকি পরিবর্তন আনতে হবে খাদ্যাভ্যাসেও। তবে ওজন কমানোর নিয়ম-কানুন পুরুষ ও মহিলাদের জন্য কিন্তু একই নয়, রয়েছে ভিন্ন সব নিয়ম-কানুন। এখানে পুরুষদের জন্য কিছু নিয়ম নিয়ে আলোচনা হলো।

৯টার পর আর কিছুই নয় : ওজন কমানোর প্রথম শর্ত হচ্ছে শৃঙ্খলাপূর্ণ জীবনযাপন। এই নিয়মেই রাত ৯টার পর কোনো কিছু না খাওয়াটাই ভালো। এতে ঘুমানোর আগে খাবার হজম হওয়ার সুযোগ থাকে। অন্যদিকে দেরিতে খেয়ে ঘুমিয়ে পড়লে খাবার হজম হওয়ার সুযোগ কম থাকে। এতে শরীরে চর্বির পরিমাণ বেড়ে যায়।

খাওয়ার আগে পানি পান : ওজন কমানোর যেসব নিয়ম রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম নির্ধারিত সময়ের খাবারের আগে অন্তত দুই গ্লাস পানি পান করা উচিত। এতে অতিরিক্ত খাওয়ার সম্ভাবনা থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

চলাচলে সিঁড়ি ব্যবহার : বাড়িতে বা অফিসে যেখানে হোক লিফট ছেড়ে সিঁড়ি ব্যবহার করা উত্তম। যদি অফিস বেশি উঁচুতে হয় তাহলে অন্তত ওঠার সময় বা নামার সময় লিফট পরিহার করা উচিত। এতে নিজের অজান্তেই ওজন কমানোর কাজটা হয়ে যাবে।

গাড়ি দূরে পার্কিং করা : যখন অফিস, শপিং, সিনেমা হল বা অন্য কোথাও যাওয়া হয় তখন সঙ্গে গাড়ি থাকলে একটু দূরেই পার্কিং করা ভালো। পার্কিং স্থানের সম্ভাব্য দূরবর্তী স্থানে গাড়ি রাখলে একটু বেশি হাঁটার সুযোগ পাওয়া যাবে। এসব কাজে সময়ও কম থাকে বলে হাঁটাটাও একটু দ্রুত হয়, যা ওজন কমানোর জন্য বেশ ফলপ্রসূ উপায়।

সঙ্গী জোগাড় করা : অনুশীলনে একজন সঙ্গী থাকা ভালো। এতে ব্যায়ামে আলস্য তো আসবেই না বরং আরো উৎসাহ পাওয়া যাবে। তা ছাড়া সঙ্গী থাকলে একটা প্রতিযোগিতার মনোভাব থাকে, যা সাফল্যের পথকে ত্বরান্বিত করে।


মন্তব্য