হামিদুজ্জামান খানের ৭০তম-332252 | খবর | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

সোমবার । ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১১ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৩ জিলহজ ১৪৩৭


হামিদুজ্জামান খানের ৭০তম জন্মজয়ন্তীতে শিল্পকর্ম প্রদর্শনী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



হামিদুজ্জামান খানের ৭০তম জন্মজয়ন্তীতে শিল্পকর্ম প্রদর্শনী

রাজধানীর উত্তরায় গ্যালারি কায়ার আয়োজনে গতকাল শুরু হয়েছে শিল্পী হামিদুজ্জামান খানের একক প্রদর্শনী ‘স্টোনস-২’। ছবি : কালের কণ্ঠ

দেশের শিল্প-ভুবনে এক উজ্জ্বল নাম হামিদুজ্জামান খান। তাঁর অঙ্গুলি-স্পর্শে পাথর খণ্ডেও যেন প্রাণ সঞ্চারিত হয়। প্রকাশিত হয় অসীম প্রাণের ব্যঞ্জনা। অবয়বের গুণে জড় বস্তুটি প্রাণসঞ্চারী হয়ে নজর কাড়ে শিল্পানুরাগীর। আগামী ১৬ মার্চ খ্যাতিমান এই ভাস্করের সত্তর বছর পূর্ণ হবে। আর এ উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার উত্তরার গ্যালারি কায়ায় শুরু হলো ‘স্টোনস-২’ শীর্ষক প্রদর্শনী। ভাস্কর্য ও চিত্রকর্ম দিয়ে সাজানো হয়েছে এই প্রদর্শনী।

নিজের শিল্প সৃজনের উৎস প্রসঙ্গে হামিদুজ্জামান খান বলেন, ‘আমি না ঘুরলে ছবি আঁকতে পারি না। যেখানেই যাই মানুষ দেখি। তাদের জীবনযাপন, চলাফেরা, বাজার, বাড়ি-ঘর সব কিছু নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করি। এসব কিছুই মনের মধ্যে একটা ছাপ ফেলে। সেসবই উঠে আসে আমার ভাস্কর্য ও ক্যানভাসে।’

 

শিল্পের প্রায় সব শাখাতেই এই শিল্পীর সমান বিচরণ। ভাস্কর্য নির্মাণের ক্ষেত্রে আগে মেটাল কাস্টিং, মেটাল শিট, মেটাল পাইপে কাজ করেছেন। এখন করছেন পাথরে। ছবির ক্ষেত্রেও তাই। জলরং, অ্যাক্রেলিকেও সমান আগ্রহ তাঁর। তবে কালো রং তাঁর প্রিয়। বলেন, ‘সব রং মিলেই তো কাল হয়’।

ভাস্কর্যের পাশাপাশি চিত্রশিল্পী হিসেবেও শিল্পরসিকদের কাছে সমাদৃত হামিদুজ্জামান খান। বিশেষ করে জলরঙে চিত্রিত চিত্রকর্মগুলো অনন্য বৈশিষ্ট্যে উজ্জ্বল। এই প্রদর্শনীতেও রয়েছে এমন কাজ। এ ছাড়া রয়েছে কিছু ড্রইং সাদা ও কালো রঙের আশ্রয়ে। চমত্কার করে ফুটিয়ে তুলেছেন নারীর মুখাবয়ব। খোদাইকৃত পাথরের ভাস্কর্যে উদ্ভাসিত হয়েছে খোলা চুলের নারীর রূপময়তা অথবা শুধুই নারীর মুখশ্রী। আরেকটি শিল্পকর্মে পাথরের বুক চিরে বেরিয়ে এসেছে মানবের মুখাবয়ব। উদ্ভাসিত হয়েছে শিং, পাখিসহ প্রাণিজগতের নানা অনুষঙ্গ। কোথাও বা উঠে এসেছে প্রকৃতি ও পরিবেশ।

প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন সামিট গ্রুপের চেয়ারম্যান মুহম্মদ আজিজ খান। সম্মানিত অতিথি ছিলেন আমেরিকান দূতাবাসের প্রেস অ্যান্ড ইনফরমেশন অফিসার ন্যান্সি টি ভ্যানহর্ন। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন শিল্পী হামিদুজ্জামান খান। স্বাগত বক্তব্য দেন গ্যালারি কায়ার পরিচালক শিল্পী গৌতম চক্রবর্তী।

প্রদর্শনীতে ৫৩টি শিল্পকর্ম স্থান পেয়েছে। প্রদর্শনী চলবে ১৮ মার্চ পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১১টা থেকে।

শিল্পী সাথীর জীবন বাঁচাতে

শিল্পকর্মের প্রদর্শনী

চিত্রপটে রঙিন স্বপ্ন আঁকেন চিত্রশিল্পী মাসুদা আহমেদ সাথী। রং ও রেখার আশ্রয়ে কখনো বলে যান  জীবনের গল্প আবার কখনো ক্যানভাস ধাবিত হয় প্রকৃতির পথে। তাঁর সেই শিল্পিত জীবনের পথচলায় আঘাত হেনেছে ঘাতক ব্যাধি ক্যান্সার। তাই বলে জীবনযুদ্ধে হারতে রাজি নন এই নবীন চিত্রকর। আর সেই সংগ্রামে তাঁর সঙ্গী হয়েছেন দেশের অর্ধশতাধিক নবীন-প্রবীণ শিল্পী। বাড়িয়ে দিয়েছেন সহমর্মিতার হাত। শিল্পের শক্তি দিয়েই এই নবীন প্রাণকে বাঁচাতে নেওয়া হয়েছে বিশেষ উদ্যোগ। ঢাকার ধানমণ্ডির দৃক গ্যালারিতে ছন্দিত বর্ণের নিভৃত কথন শীর্ষক প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। প্রদর্শনীতে শিল্পকর্মের বিক্রয়লব্ধ অর্থ ব্যয় করা হবে মাসুদা আহমেদ সাথীর চিকিৎসার্থে।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রখ্যাত শিল্পী অধ্যাপক সমরজিৎ রায় চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন খ্যাতিমান দুই শিল্পী মনিরুল ইসলাম ও সৈয়দ আবুল বারক আলভী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মাসুদ আহমেদ সাথী।

প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকারী শিল্পীরা হলেন সমরজিৎ রায় চৌধুরী, মনিরুল ইসলাম, রফিকুন নবী, সৈয়দ আবুল বার্ক আল্ভী, আবদুল মান্নান, কালিদাস কর্মকার, আবদুস সাত্তার, চন্দ্রশেখর দে, কে এম এ কাইয়ুম, নাজলী লায়লা মনসুর, রণজিৎ দাস, আইভি জামান, জামাল আহমেদ, ঢালী আল মামুন, নাসরীন বেগম, রোকেয়া সুলতানা, নিসার হোসেন, শেখ আফজাল, শিশির ভট্টাচার্য্য, নাছিমা মাসুদ রুবী, মোস্তাফিজুল হক, মইনুল ইসলাম শিল্পু, জাহিদ মুস্তাফা, নাসিমা খানম কুইনি, উত্তম গুহ, মোহাম্মদ ইকবাল, রশীদ আমিন, আনিসুজ্জামান, রফি হক, মীর আহসানুল আলম, সুনীল কুমার, শিশির মল্লিক, উত্তম তালুকদার, গুপু ত্রিবেদী, মলয় বালা, পীযূষ কান্তি সরকার, আবদুস সাত্তার তৌফিক, বিশ্বজিৎ গোস্বামী, কামালুদ্দিন, মুকুল বাড়ৈ, আজমীর হোসাইন, শাহনূর মামুন, আশরাফুল হাসান, মহিউদ্দিন আহমেদ, লিটন ভূঁইয়া, জাহেদ আলী চৌধুরী, আবেশ কুমার ইন্দু, তাহিমনা হাফিজ লিসা, কান্তিদেব অধিকারী, বিপ্লব দত্ত, ইকবাল হোসাইন, সুলতানা পুতুল, মেহেদী হাসান, সুব্রত দাশ, শামীম আকন্দ, মো. হানিফ পাপ্পু প্রমুখ।

৯ দিনব্যাপী এ প্রদর্শনী চলবে আগামী ১২ মার্চ পর্যন্ত প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে।

গ্যালারি কসমসে আসিফ বাহাউদ্দীনের চিত্রপ্রদর্শনী

রঙের ওপর রং চাপিয়ে ক্যানভাস সাজান চিত্রশিল্পী আসিফ বাহাউদ্দীন সিকদার। বর্ণময় ছবিতে আধা-বিমূর্ত রীতিতে মেলে ধরেন বিষয়কে। চিত্রপটের আঙ্গিক ধরে ছুটে পরাবাস্তবতার পথে। দেখা জগতের সঙ্গে কল্পনার রঙে মিলিয়ে নেন অদেখা ভুবনকে। যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী এই শিল্পীর তেমন কিছু ছবি নিয়ে নিউ ডিওএইচএসের গ্যালারি কসমে শুরু হলো প্রদর্শনী। শিরোনাম ‘রিয়েলি ডোন্ট মাইন এ লিটল বিট অব লোনসাম’।

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রধান অতিথি হিসেবে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক নিসার হোসেন এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের খাদ্য ও পুষ্টি বিভাগের অধ্যাপক নাজমা শাহীন। অনুষ্ঠানে অনুভূতি প্রকাশ করে বক্তব্য দেন শিল্পী আসিফ বাহাউদ্দীন শিকার।

মিশ্র মাধ্যমে সৃজিত ৩১টি চিত্রকর্ম দিয়ে সাজানো হয়েছে প্রদর্শনী। আট দিনব্যাপী এ প্রদর্শনী চলবে আগামী ১১ মার্চ পর্যন্ত প্রতিদিন দুপুর ১২টা থেকে।

মন্তব্য