সুন্দরবনে ৩৫ নদী-331577 | খবর | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

সোমবার । ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১১ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৩ জিলহজ ১৪৩৭


‘সুন্দরবন এটলাস’ গ্রন্থের তথ্য

সুন্দরবনে ৩৫ নদী

৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



সুন্দরবনে ৩৫ নদী

বাংলাদেশ ফরেক্ট কম্পার্টমেন্ট ম্যাপস অ্যান্ড গেজেটিয়ার ‘সুন্দরবন এটলাস’-নামের বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয় গতকাল বন অধিদপ্তরে। এ সময় বইয়ের লেখক হেলমুট ডেনজাও, গার্ট্রুড নিউম্যান-ডেনজাও এবং পিটার জার্নগ্রস উপস্থিত ছিলেন। ছবি : কালের কণ্ঠ

প্রায় ছয় হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে সুন্দরবনে নদীর সংখ্যা কয়টি, তা নিয়ে বাংলাদেশে বেশ বিতর্ক রয়েছে। তবে জার্মান ও অস্ট্রিয়ার তিনজন গবেষকের ‘সুন্দরবন এটলাস’ নামের বইয়ে বলা হয়েছে, সুন্দরবনে এখন ৩৫টি নদী আছে। গতকাল বুধবার বেসরকারি সংস্থা সোসাইটি ফর এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট (সেড) বইটি প্রকাশ করেছে।

জার্মান নাগরিক হেলমুত দেনজাও ও গাত্রুদ নওম্যান দেনজাও এবং অস্ট্রিয়ার নাগরিক পিটার গ্রানগর্স এ তিনজন ১৫ বছর ধরে সুন্দরবন এলাকায় ঘুরে এবং পুরনো সব নথি পর্যালোচনা করে বইটি তৈরি করেছেন। এতে বলা হয়েছে, সুন্দরবনে বড় নদী মূলত চার থেকে পাঁচটি। তার মধ্যে রয়েছে বলেশ্বর নদী, পশুর, শিবসা, খোলপেটুয়া ও কালিন্দি নদী। সেখান থেকে শাখা-প্রশাখা দিয়ে আরো ৩০টি নদী ভিন্ন ভিন্ন নাম ধারণ করেছে।

প্রকাশনা অনুষ্ঠানে সুন্দরবন এটলাস সম্পর্কে মূল বক্তব্যে গাত্রুদ নওম্যান দেনজাও বলেন, ‘বইটি দীর্ঘদিনের কাজের অভিজ্ঞতা ও পর্যবেক্ষণের ফসল। সুন্দরবন এটলাস বন সংরক্ষক, বিজ্ঞানী, গবেষক, সাংবাদিক, বনবিভাগ, আইন প্রয়োগকারী সংস্থা, এনজিও, জেলে, নৌযান চালক, পর্যটন কম্পানি ও গাইড এবং পর্যটকদের বিশেষভাবে সহায়তা করবে। সবাই যাতে সুন্দরবনকে ভালোমতো দেখতে পারেন সে লক্ষ্যেই এই মানচিত্র।

গতকাল রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বন ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ইউজিসির সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক নজরুল ইসলাম। অন্যদের মধ্যে প্রধান বন সংরক্ষক ইউনুস আলী, সেডের পরিচালক ফিলিপ গাইন, সেডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক সাখাওয়াত আলী খান এবং বইয়ের তিন রচয়িতাই উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য