kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


টেন্ডার না পাওয়ার জের

রংপুর মৎস্য দপ্তরে হামলা ছাত্রলীগের

রংপুর অফিস   

২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



দরপত্র জমা দিয়ে কাজ না পাওয়ায় রংপুর নগরের তাজহাটে বিভাগীয় মত্স্য সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্প কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে ছাত্রলীগ। এ সময় তারা এক কর্মচারীকে পিটিয়ে আহত করেছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বিপ্লব মিয়া (২৫) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুুলিশ। তবে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে হামলার অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।

রংপুর বিভাগীয় মৎস্য সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্প কার্যালয়ের হিসাবরক্ষক সাজ্জাদ আল মামুন জানান, মঙ্গলবার বিকেলের দিকে বেশ কিছু যুবক ধারালো অস্ত্র নিয়ে আসে। এরপর প্রকল্প পরিচালককে  খুঁজতে থাকে। একপর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে ছাত্রলীগকর্মীরা দপ্তরের বিভিন্ন দরজা-জানালায় ভাঙচুর শুরু করে। এতে বাধা দিলে তারা কর্মচারী বাদশা মিয়াকে মারধর করে।

কর্মচারী বাদশা মিয়া অভিযোগ করে বলেন, অফিসে ঢুকেই তারা বলতে থাকে, ‘তোরা ছাত্রলীগকে চিনিস না। কাজ চাইলেও তোরা ছাত্রলীগকে পাত্তা দিস না। এবার বুঝবি ছাত্রলীগ কী জিনিস। ’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই অফিসের এক কর্মকতা জানান, জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে দুজন ঠিকাদারকে কাজ দেওয়ার জন্য সুপারিশ করা হয়। কিন্তু নিয়ম অনুযায়ী তারা কাজ পায়নি।

এ ব্যাপারে রংপুর মহানগর ২৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদ সনু কালের কণ্ঠকে জানান, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান রনি ও মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মুরাদ হোসেনের নেতৃত্বে ৬০ থেকে ৭০ জন নেতাকর্মী ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটিয়েছে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান রনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘এ ধরনের কোনো কাজে আমার জড়িত থাকার প্রশ্নই ওঠে না। তা ছাড়া কে বা কারা সেখানে হামলা করেছে, তাও আমার জানা নেই। ’


মন্তব্য