kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


স্পিকারের রুলিং

সংসদের বিধি লঙ্ঘন করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



প্রশ্নোত্তর দেওয়ার ক্ষেত্রে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সংসদের কার্যপ্রণালী বিধি লঙ্ঘন করেছে বলে জানিয়েছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। তিনি এ বিষয়ে সতর্ক করার পাশাপাশি সব মন্ত্রণালয়কে কার্যপ্রণালী বিধি অনুসরণ করে প্রশ্নোত্তর প্রদানে অধিক যত্নবান ও মনোযোগী হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

গতকাল সোমবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনের শুরুতেই স্পিকার এ রুলিং দেন। তিনি সরকারদলীয় সংসদ সদস্য ও সাবেক তথ্যমন্ত্রী আবুল কালাম আজাদের পয়েন্ট অব অর্ডারের বিষয়ে সংসদ সদস্যদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, ‘গত ১৬ ফেব্রুয়ারি সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদ একটি বিষয়ে পয়েন্ট অব অর্ডারে আমাকে দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলেন। আমি বলেছিলাম, আমি বিষয়টি বিস্তারিত জেনে সংসদকে জানাব। আমি ইতিমধ্যে বিস্তারিত জেনেছি, তাই আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। ওই সংসদ সদস্য প্রশ্নটি প্রথমবার করেন ২০১৫ সালের ১৯ নভেম্বর। তখন প্রশ্নোত্তর বইয়ে তারকা চিহ্নিত প্রশ্ন ৮৭৫ পরবর্তী দিনে স্থানান্তর ছিল, সেই অনুযায়ী পরবর্তী দিন আসার আগেই অষ্টম অধিবেশন শেষ হয়ে যায়। এরপর চলতি নবম অধিবেশন শুরু হলে ২ ফেব্রুয়ারি তারিখে আবারও একই প্রশ্ন করেন আবুল কালাম আজাদ। সেদিনও পরবর্তী দিনের জন্য স্থানান্তর  করা হয়। সেই অনুযায়ী পরবর্তী নির্ধারিত দিনে অর্থাৎ ১৬ ফেব্রুয়ারি উত্তর প্রদান করা আবশ্যক ছিল, অথবা মন্ত্রণালয় কর্তৃক তা স্থানান্তর করার অনুরোধ করার প্রয়োজন ছিল। কিন্তু স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক কোনোটিই করা হয়নি। যা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রশ্নোত্তর অগ্রায়নপত্র থেকে প্রতীয়মান হয়।   উত্তর প্রদান না করা বা পরবর্তী দিনে স্থানান্তরের অনুরোধ না করায় কার্যপ্রণালী বিধির ব্যত্যয় ঘটেছে।

কার্যপ্রণালী বিধির কথা উল্লেখ করে স্পিকার বলেন, কোনো প্রশ্নের তাত্ক্ষণিক উত্তর দেওয়ার জন্য যদি মন্ত্রীদের কাছে যথেষ্ট তথ্য না থাকে বা সেগুলো নিয়ে যদি প্রস্তুতি না থাকে তাহলে কার্যপ্রণালী বিধির ৫২ শর্তবিধি অনুযায়ী মন্ত্রীরা তা পরবর্তী দিনে রাখতে পারেন। সে অনুযায়ী সব মন্ত্রণালয়কে কার্যপ্রণালী বিধি অনুসরণ করে প্রশ্নোত্তর প্রদানে অধিক যত্নবান ও মনোযোগী হওয়ার নির্দেশ দেওয়া যাচ্ছে।


মন্তব্য