kalerkantho


জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত ও পূরবী বসুর উপন্যাসের প্রকাশনা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৪ ০০:০০



জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত ও পূরবী বসুর উপন্যাসের প্রকাশনা

জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে দুই গল্পকারের প্রথম উপন্যাসের প্রকাশনা উৎসব। ছবি : কালের কণ্ঠ

বিগত শতকের ষাট ও সত্তরের দশকের দুই খ্যাতিমান গল্পকার জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত ও পূরবী বসু। জ্যোতিপ্রকাশ দত্তের পাঠকমাত্রই জানেন তাঁর রচনার গ্রন্থনা, গল্পের কারুকাজ ভিন্ন চরিত্রের, অন্যমাত্রার। পূরবী বসুর গল্প নারী-ভাবনা ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির চেতনায় ঋদ্ধ। অধিকারহীন মানুষের কথকতা মূর্ত হয়ে ওঠে তাঁর লেখায়। এই দুজন স্বনামধন্য লেখক দম্পতি প্রথমবারের মতো লিখেছেন দুটি উপন্যাস। জ্যোতিপ্রকাশ লিখেছেন 'শূন্য নভে ভ্রমি' এবং পুরবী বসু 'অবিনাশী যাত্রা'।

উপন্যাস দুটির প্রকাশনা অনুষ্ঠান হলো গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আলোচনা করেন অধ্যাপক হায়াৎ মামুদ ও কবি মুহাম্মদ নূরুল হুদা। স্বাগত বক্তব্য দেন বইয়ের প্রকাশক অন্যপ্রকাশের প্রধান নির্বাহী মাজহারুল ইসলাম।

ড. আনিসুজ্জামান বলেন, লেখক দম্পতির উপন্যাস দুটি পাঠক মহলে বিশেষ আলোড়ন তুলবে।

শামসুজ্জামান খান বলেন, এই দুই লেখকের লেখায় বাংলাদেশ গভীরতর ছায়া বিস্তার করে আছে। জীবনের গভীরতর বোধ তাঁদের লেখায় বিস্তৃত। যে দুটি উপন্যাস প্রকাশিত হলো তা বাংলা সাহিত্যের নতুন ধারার সূচনা করবে।

হায়াৎ মামুদ বলেন, জ্যোতিপ্রকাশ দত্তের লেখার সঙ্গে বহু পরিচিত হলেও তার এই উপন্যাস একটু অন্য স্বাদের। পাঠকমহলকে আকৃষ্ট করবে তাঁর বাক্যের গাঁথুনি দিয়ে। 'গদ্য-পদ্য' মিশেলে ভাষা দিয়ে কিভাবে গল্প বলা যায় তার একটি প্রকৃষ্ট উদাহরণ হতে পারে 'শূন্য নভে ভ্রমি' বইটি। আর পূরবী বসুর লেখায় অভিবাসী জীবনের খণ্ডিত অংশ স্পষ্ট হয়ে ধরা দিয়েছে। এটাও সুখপাঠ্য হিসেবে পাঠক মহলে বিশেষ জায়গা করে নেবে।

মুহাম্মদ নূরুল হুদা বলেন, গল্পহীন গল্প যখন চলছে তখন জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত একটি গল্প তৈরি করেছেন। বিপন্ন অস্তিত্বের একটি মেয়ের স্বপ্ন গড়ার সংগ্রামকে নিয়ে তিনি উপন্যাস লিখেছেন। এতে ঘরে না ফেরা মানুষের কাহিনীটি ফুটে উঠেছে। আর পূরবী বসুর উপন্যাসে একাকী একজন নারীর অভিবাসী জীবনের সংগ্রামের চিত্র পাওয়া যায়। সমকালীন সমাজে এই ধরনের চিত্র বিদ্যমান।



মন্তব্য