kalerkantho

ব্যক্তিত্ব

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



ব্যক্তিত্ব

সুকুমার রায়

শিশুসাহিত্যিক সুকুমার রায়ের জন্ম ১৮৮৭ সালের ৩০ অক্টোবর কলকাতায়। তাঁর বাবার নাম উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী। সত্যজিৎ রায় তাঁর পুত্র। তিনি সিটি স্কুল থেকে প্রবেশিকা পাস করে প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে ১৯১১ সালে রসায়নে অনার্সসহ বিএসসি পাস করেন। পরে ফটোগ্রাফি ও প্রিন্টিং টেকনোলজিতে উচ্চশিক্ষার জন্য তিনি বিলেতে যান। প্রথমে লন্ডন এবং পরে ম্যানচেস্টারে স্কুল অব টেকনোলজিতে তিনি লেখাপড়া করেন। প্রবাসে থাকা অবস্থায় তিনি বিভিন্ন বিষয়ে খ্যাতি অর্জন করেন। এক অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রবিষয়ে প্রবন্ধ পাঠ করেন এবং সেটি পত্রিকায় প্রকাশিত হলে তাঁর খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে। তিনি রয়াল ফটোগ্রাফিক সোসাইটির ফেলো নির্বাচিত হন। ১৯১৩ সালে দেশে ফিরে তিনি বাবার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ইউ রায় অ্যান্ড সন্সে যোগ দেন। কলেজজীবনে তিনি ছোটদের হাসির নাটক রচনা ও তাতে অভিনয় করতেন। তিনি শান্তিনিকেতনে একবার রবীন্দ্রনাথ ও অবনীন্দ্রনাথের সঙ্গে ‘গোড়ায় গলদ’ নাটকে অভিনয় করেছিলেন। বাবার মৃত্যুর পর তিনি পিতৃপ্রতিষ্ঠিত সন্দেশ পত্রিকা সম্পাদনার দায়িত্ব পালন করেন। প্রেসিডেন্সিতে ছাত্র থাকাকালে তিনি ননসেন্স ক্লাব নামে একটি সংগঠন গড়ে তোলেন, যার মুখপত্র ছিল সাড়ে-বত্রিশ-ভাজা। বিলেত থেকে ফিরে তিনি গঠন করেন মানডে ক্লাব। এখানে আলোচনা ও পাঠের সঙ্গে থাকত ভূরিভোজের ব্যবস্থা। তাই ব্যঙ্গ করে কেউ কেউ একে বলত মন্ডা ক্লাব। তাঁর প্রধান অবদান শিশু-কিশোর উপযোগী বিচিত্র সাহিত্যকর্ম। কবিতা, নাটক, গল্প, ছবি—সব কিছুতেই তিনি সূক্ষ্ম ব্যঙ্গ ও কৌতুকরস সঞ্চার করতে পারতেন। তাঁর উল্লেখযোগ্য রচনা : ‘আবোল-তাবোল’, ‘হ-য-ব-র-ল’, ‘খাইখাই’, ‘ঝালাপালা’ ইত্যাদি। ১৯২৩ সালের ১০ সেপ্টেম্বর তিনি মারা যান।

[বাংলাপিডিয়া অবলম্বনে]

 



মন্তব্য