kalerkantho

ব্যক্তিত্ব

৪ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



ব্যক্তিত্ব

আবুল কালাম শামসুদ্দীন

সাংবাদিক ও সাহিত্যিক আবুল কালাম শামসুদ্দীনের জন্ম  ১৮৯৭ সালের ৩ নভেম্বর ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশালে। তিনি ১৯১৯ সালে ঢাকা কলেজ থেকে আইএ পাস করার পর কলকাতার রিপন কলেজে বিএ শ্রেণিতে ভর্তি হন। কিন্তু ওই সময় খিলাফত ও অসহযোগ আন্দোলন শুরু হলে তিনি তাতে যোগ দেন এবং বিএ পরীক্ষা না দিয়ে কলকাতার গৌড়ীয় সুবর্ণ বিদ্যায়তন থেকে ১৯২১ সালে উপাধি পরীক্ষা পাস করেন। ১৯২২ সালে মাসিক মোহাম্মদী পত্রিকার সহযোগী সম্পাদক হিসেবে তাঁর সাংবাদিকজীবন শুরু হয়। পরে তিনি সাপ্তাহিক মোসলেম জগৎ, দ্য মুসলমান, দৈনিক সোলতান প্রভৃতি পত্রিকা সম্পাদনা করেন। ১৯৩৬ সালে তিনি দৈনিক আজাদে যোগ দেন এবং পরে ১৯৪০-৬২ সাল পর্যন্ত সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৬৪ সালে দৈনিক পাকিস্তানের সম্পাদক নিযুক্ত হয়ে ১৯৭২ সালে তিনি অবসরগ্রহণ করেন। ১৯৫২ সালের একুশে ফেব্রুয়ারি ছাত্র হত্যার প্রতিবাদে তিনি আইন পরিষদের সদস্য পদ ও মুসলিম লীগ সংসদীয় পার্টি ত্যাগ করেন। ২৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হোস্টেল প্রাঙ্গণে প্রথমবার যে শহীদ মিনার নির্মিত হয়, আবুল কালাম শামসুদ্দীন তার উদ্বোধন করেন। তাঁর রচিত ও অনূদিত একাধিক গ্রন্থ রয়েছে। ‘পলাশী থেকে পাকিস্তান’ ও ‘অতীত দিনের স্মৃতি’ তাঁর উল্লেখযোগ্য রচনা। তিনি ১৯৬১ সালে সরকার কর্তৃক সিতারা-ই-খিদমত এবং ১৯৬৭ সালে সিতারা-ই-ইমতিয়াজ উপাধিতে ভূষিত হন। ১৯৭০ সালে তিনি বাংলা একাডেমি পুরস্কার এবং ১৯৭৬ সালে একুশে পদক লাভ করেন। ১৯৭৮ সালের ৪ মার্চ ঢাকায় তাঁর মৃত্যু হয়।

[বাংলাপিডিয়া অবলম্বনে]


মন্তব্য