kalerkantho

ব্যক্তিত্ব

১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



ব্যক্তিত্ব

সাঈদ উদ্দিন আহমেদ

ভাষাসৈনিক সাঈদ উদ্দিন আহমেদের জন্ম ১৯৩১ সালের ২২ অক্টোবর, রাজশাহীতে। তিনি তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তানের ভাষা আন্দোলনের অন্যতম ভাষাসংগ্রামী। ১৯৫০ সালে তিনি রাজশাহী মুসলিম হাই স্কুল থেকে এসএসসি পাস করেন। বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনের সময় তিনি রাজশাহী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন। তখন ভাষা আন্দোলনে রাজশাহীর সর্বস্তরের পেশাজীবী ছাত্র-জনতা অংশ নেয়। ভাষার জন্য যাঁরা একত্র হয়েছিলেন, তিনি ছিলেন তাঁদের অন্যতম। ভাষাশহীদদের স্মরণে রাজশাহী কলেজ চত্বরে দেশের প্রথম শহীদ মিনার নির্মিত হয়। ভাষা আন্দোলনে রাজশাহীর সক্রিয় সেনাদের অকাট্য দাবি, দেশের প্রথম শহীদ মিনার ছিল এটিই এবং এই শহীদ মিনার নির্মাণেও অবদান ছিল তাঁর। এটি নির্মাণের পর তাঁর গায়ে ‘বিদ্রোহী’ কবিতার দুটি লাইন লিখে দিয়েছিলেন তিনি। আইনজীবী হিসেবে তিনি কাজ শুরু করলেও সাংবাদিকতাও করেছেন। তিনি রাজশাহী প্রেস ক্লাবের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন। ইত্তেফাক, সংবাদ, ডেইলি পিপল, ডেইলি মর্নিং পোস্ট, অবজারভারসহ বেশ কয়েকটি সংবাদপত্রে তিনি কাজ করেছেন। তিনি বেশ কিছু বইও লিখেছেন।

প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে ‘রাজশাহী প্রতিভা’ ও ‘বরেন্দ্র বাতিঘর’ অন্যতম। শেষ জীবনে ডায়াবেটিসসহ নানা জটিল রোগে আক্রান্ত ছিলেন। ২০১৪ সালের ১ মার্চ অগ্নিঝরা মার্চের শুরুতেই চিরদিনের জন্য বিদায় নেন ভাষাসৈনিক সাঈদ উদ্দিন আহমেদ। মৃত্যুর আগে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন ছিলেন।

[উইকিপিডিয়া অবলম্বনে]

 


মন্তব্য