kalerkantho

ব্যক্তিত্ব

২১ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



ব্যক্তিত্ব

সাঈদ আহমদ

নাট্যকার, চিত্র সমালোচক, শিক্ষাবিদ সাঈদ আহমদ ১৯৩১ সালের ১ জানুয়ারি পুরান ঢাকার ইসলামপুরে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবা মীর্জা এফ মোহাম্মদ, মা জামিলা খাতুন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর করে সাঈদ আহমদ লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিকস থেকে পোস্টগ্র্যাজুয়েট ডিগ্রি নেন। ইচ্ছা ছিল উচ্চাঙ্গসংগীত শিল্পী হবেন। বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে তিনি ‘সাঈদ আহমদ ও সম্প্রদায়’ নামে একটি দল গঠন করেন। দলটি রেডিওতে নিয়মিত অর্কেস্ট্রা পরিবেশন করত। লন্ডনে পড়ার সময় তিনি পশ্চিমা সংগীত শেখেন। বিবিসির উর্দু, বাংলা, ওয়েস্ট বেঙ্গল, শ্রীলঙ্কা ইত্যাদি সার্ভিসে তিনি সেতার ও অর্কেস্ট্রা বাজাতেন। ১৯৫৬ সালে সরকারি চাকরি সূত্রে লাহোরে যান। সেখানে তিনি বিমূর্ত ধারার নাটক লিখতে শুরু করেন। বাংলা নাটকের এই ধারায় তাঁকে পুরোধা বলা যায়। তাঁর নাটকের মধ্যে আছে কালবেলা, মাইলপোস্ট, তৃষ্ণায়, একদিন প্রতিদিন ও শেষ নবাব। তাঁর নাটক ফরাসি, জার্মান, ইতালীয়, উর্দু ও পাঞ্জাবি ভাষায় অনূদিত হয়েছে। চিত্রকলার সমালোচক হিসেবেও তিনি খ্যাতি অর্জন করেন। চিত্রকলা নিয়ে লিখেছেন ‘আর্ট ইন বাংলাদেশ’, ‘পেইন্টিং ইন বাংলাদেশ’, ‘কনটেমপোরারি আর্ট’ ইত্যাদি বই। নাট্যকার, চিত্র সমালোচক ও সংস্কৃতি শিক্ষক হিসেবে ১৯৬৫ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত বিশ্বের নানা দেশে বক্তব্য দিয়েছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগীত ও নাট্যকলা বিভাগে খণ্ডকালীন শিক্ষকতা করেছেন। ১৯৮২ সালে বাংলাদেশ টেলিভিশনে ‘বিশ্বনাটক’ অনুষ্ঠান শুরু করেন। তাঁর আরো কিছু উল্লেখযোগ্য বই হলো ‘বাংলাদেশের সুরস্রষ্টারা’, ‘জীবনের সাতরং’ ও ‘ঢাকা আমার ঢাকা’। তিনি বাংলা একাডেমি পুরস্কার, একুশে পদক, ফরাসি সরকারের ‘লিজিয়ান দ্য অনার’সহ বিভিন্ন সম্মাননা পেয়েছেন। ২০১০ সালের ২১ জানুয়ারি তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

 

[বাংলাপিডিয়া অবলম্বনে]



মন্তব্য