kalerkantho


পবিত্র কোরআনের আলো । ধা রা বা হি ক

বিভিন্ন রঙের মধু মানুষের জন্য শিফা

১৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



বিভিন্ন রঙের মধু মানুষের জন্য শিফা

৬৯. (আল্লাহ মৌমাছিকে নির্দেশ দিয়েছেন) এরপর (গৃহ নির্মাণের পর) প্রত্যেক ফল থেকে কিছু কিছু আহার করো, অতঃপর তোমার প্রতিপালকের সহজ পথ অনুসরণ করো।

তার পেট থেকে নির্গত হয় বিবিধ বর্ণের পানীয়, এর মধ্যে মানুষের জন্য আরোগ্য রয়েছে। অবশ্যই চিন্তাশীল সম্প্রদায়ের জন্য এতে নিদর্শন রয়েছে। [ সুরা : নাহল, আয়াত : ৬৯ (প্রথম পর্ব)]

তাফসির : আগের আয়াতে মৌমাছি সম্পর্কে বর্ণনা করা হয়েছিল। সে আলোচনার বাকি অংশ আলোচ্য আয়াতে তুলে ধরা হয়েছে। এখানে মৌমাছির মধু আহরণের প্রক্রিয়া বর্ণনা করা হয়েছে। মৌমাছি বিভিন্ন ফল ও ফুল থেকে কিছু অংশ আহার করে। পুরোটা খেয়ে ওই ফুল ও ফল সমূলে ধ্বংস করে না।

মৌমাছি ও গাছপালার মধ্যে চমৎকার সম্পর্ক বিরাজ করে। মৌমাছি একটা গাছ থেকে যতটুকু গ্রহণ করে, তার চেয়ে অনেক বেশি তাকে দেয়। মৌমাছি পরাগায়ণে সাহায্য করে। এক ফুল থেকে আরেক ফুলে যাওয়ার সময় ফুলের রেণু পায়ে করে আরেক ফুলে পৌঁছে দেয়। ফলে পরাগায়ণ সংগঠিত হতে পারে।

পৃথিবীর পতঙ্গ-পরাগায়ণের শতকরা ৯০ ভাগই মৌমাছির অবদান। এরা না থাকলে বহু উদ্ভিদ হারিয়ে যেত কালের গর্ভে। উদ্ভিদের ফলন হতো অনেক কম। আমেরিকান একটি গবেষণায় দেখা যায়, মৌমাছির পরাগায়ণের কারণে শুধু আমেরিকায়ই প্রতিবছর ৩২ বিলিয়ন ডলার মূল্যের ফসল বেশি উৎপন্ন হয়।

মধুর উপাদান আহরণ করে সুনির্দিষ্ট পথে মৌমাছিরা ঘরে ফিরে আসে। ঘরে আসার পর দীর্ঘ প্রক্রিয়া শেষে বিভিন্ন রঙের মধু তৈরি হয়। এই মধু মানুষের বিভিন্ন রোগের প্রতিষেধক। মধু মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। মধু মানুষের দেহকোষকে সতেজ ও সবল করে। অসুস্থ, ক্ষত ও পচন ধরা দেহ কোষগুলোকে জীবন্ত করে। দেহকোষ জীবন্ত হলেই মানবদেহ ফুরফুরে হয়ে ওঠে। মৌমাছি যেহেতু প্রত্যেক গাছের ফুল থেকেই মধু সংগ্রহ করে, সে জন্য সব গাছের ভেষজ গুণাবলি মধুর মধ্যে লুকিয়ে থাকে।

হজরত আবু সাঈদ খুদরি (রা.) থেকে বর্ণিত, এক ব্যক্তি মহানবী (সা.)-এর কাছে এসে বলল, ‘হে আল্লাহর রাসুল! আমার ভাইয়ের পেট ছুটে গেছে। অর্থাৎ তরল পায়খানা হচ্ছে।’ তিনি বলেন, তাকে মধু পান করিয়ে দাও। লোকটি চলে যায় ও তাকে মধু পান করায়। ফিরে এসে সে বলল, হে আল্লাহর রাসুল! তার পায়খানা তো আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। মহানবী (সা.) তাকে একই দাওয়াই দিয়ে আবার পাঠালেন। লোকটি আবার ফিরে এসে আগের কথাই বলল। মহানবী (সা.) বলেন, আল্লাহ সত্যবাদী ও তোমার ভাইয়ের পেট মিথ্যাবাদী। লোকটি চলে যায় এবং তাকে আবার মধু পান করায়। এবার সে সম্পূর্ণরূপে আরোগ্য লাভ করে। (তিরমিজি, হাদিস : ২০২৩)

আলোচ্য আয়াত থেকে আরো জানা যায়, মধু বিভিন্ন রঙের হয়ে থাকে। ফুলের বর্ণভেদে মধুর রঙের পরিবর্তন হয়। পেয়ারা, ধুতুরা ও খেজুর ফুলের মধুর বর্ণ সাদা হয়। সরিষা ফুলের মধুর বর্ণ সরিষার তেলের মতো হয়।

মানুষ তৃপ্তির সঙ্গে মধু পান করে। কিন্তু তারা ভাবে না, এ নিয়ামত তাদের পর্যন্ত পৌঁছতে কত কত পরিশ্রম করেছে মৌমাছিরা! মৌমাছিকে এমন কষ্টসাধ্য কাজে বাধ্য করেছেন যে স্রষ্টা, মানুষ সেই স্রষ্টারও নাফরমানি করে!

গ্রন্থনা : মাওলানা কাসেম শরীফ



মন্তব্য