kalerkantho

ব্যক্তিত্ব

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ব্যক্তিত্ব

হেনরি জেমস

হেনরি জেমস ইংরেজি সাহিত্যের অনবদ্য লেখক। ১৮৪৩ সালের ১৫ এপ্রিল নিউ ইয়র্কে এক ধনী পরিবারে তাঁর জন্ম। শিক্ষা মূলত যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে। পরে ১৮৬২ সালে তিনি আইন পড়ার জন্য যোগ দেন হার্ভার্ডে। নিউ ইংল্যান্ড লেখক গোষ্ঠীর সদস্য জেমস রাসেল লয়েল, এইচ ডাব্লিউ লংফেলো, উইলিয়াম ডিন প্রমুখ ছিলেন তাঁর বন্ধুস্থানীয়। ১৮৬০-এর দশকের শেষদিক থেকে পুরনো ইউরোপীয় সভ্যতা তাঁকে বিশেষভাবে আকর্ষণ করতে শুরু করে। এই সময় ইউরোপে তিনি দীর্ঘদিন কাটান। শেষে ১৮৭৫ সালে পাকাপাকিভাবে চলে আসেন লন্ডনে। ১৮৯৭ সাল পর্যন্ত জেমস লন্ডনেই ছিলেন। তারপর তিনি চলে যান রাইতে। সেখানেই বাকি জীবন কাটিয়ে দেন।

উপন্যাস, ছোটগল্প, ভ্রমণকাহিনি, সাহিত্য সমালোচনা, আত্মজীবনী—এক কথায় সাহিত্যের নানা শাখায় তাঁর বিচরণ ছিল। তিনি আধুনিক ঔপন্যাসিকদের মধ্যে প্রথম প্রজন্মের ব্যক্তিত্ব। ‘দ্য পোর্ট্রেট অব আ লেডি’ (১৮৮১) তাঁর প্রথম জীবনের অন্যতম শ্রেষ্ঠ রচনা। এর সূক্ষ্ম চরিত্র বিশ্লেষণ ও সযত্ন রচনাশৈলী তাঁকে সাহিত্যজীবনের পরবর্তী স্তরে নিয়ে যেতে সাহায্য করে। উপন্যাস রচনা ছিল জেমসের দৃষ্টিতে এক শিল্প। তিনি উপন্যাসকে বিচার করতেন শিল্পের দৃষ্টিকোণ থেকে, নৈতিকতার দৃষ্টিকোণ থেকে নয়। ছোটগল্পেও হেনরি জেমস ছিলেন মুকুটহীন সম্রাট। তিনি প্রায় ১০০টি ছোটগল্প লিখেছেন, যার সূচনা হয়েছিল আমেরিকান পত্রপত্রিকার চাহিদা মেটানোর উদ্দেশ্যে। জীবনের মধ্যভাগ পর্যন্ত ছোটগল্প লিখেছেন তিনি। তাঁর সবচেয়ে বিখ্যাত গল্প সংকলন সম্ভবত ‘দ্য টার্ন অব দ্য স্ক্রিউ’ (১৮৯৮)। ১৯১৫ সালে তিনি ব্রিটেনের নাগরিকত্ব লাভ করেন। পরের বছর ১৮ ফেব্রুয়ারি হেনরি জেমস মারা যান।


মন্তব্য