kalerkantho

ভালো থাকুন

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ভালো থাকুন

শিশুর শ্বাসনালির রোগ

শ্বাসনালিতে ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণে শিশুর হঠাৎ প্রদাহ হতে পারে। শ্বাসনালি ও এর শাখা-প্রশাখার ক্ষুদ্র ঝিল্লি আক্রান্ত হলে এ রোগ হতে পারে। শরীরে বেশি পানি লাগানো, বেশি ঠাণ্ডা পানিতে গোসল, শরীর তপ্ত হওয়ার পর পরই খালি গায়ে ঠাণ্ডা বাতাস লাগানো, বেশি ঠাণ্ডা খাবার খাওয়া, কম পোশাকে ঠাণ্ডা বাতাসে ঘোরাঘুরির কারণে প্রদাহ হতে পারে। প্রদাহের কারণে সর্দি-কাশি, জ্বর হয়। রোগীকে বিশ্রামে রাখতে হবে। হঠাৎ প্রদাহ বেশির ভাগ ক্ষেত্রে কয়েক দিনের মধ্যে ভালো হয়ে গেলেও কিছু ক্ষেত্রে তা দীর্ঘমেয়াদি হতে পারে। কাশি ও কফের জন্য মেনথল মিশ্রিত জলীয় বাষ্প শ্বাসের সঙ্গে ১০ মিনিট ধরে দিনে দু-তিনবার নিলে উপকার পাওয়া যায়। চিকিৎসকের পরামর্শমতো অ্যান্টিবায়োটিক সেবন করা যেতে পারে। শ্বাসনালির সংকীর্ণতার ফলে শ্বাসকষ্ট হলে সালবিউটামল জাতীয় ওষুধ সেবন করা যেতে পারে। অনেক শিশু হাঁপানিতে ভোগে। তাদের কাশি ও শ্বাসকষ্টের সঙ্গে বুকের ভেতর বাঁশির মতো সাঁই সাঁই শব্দ হয়।

চিকিৎসকের পরামর্শমতো তাদের দীর্ঘদিন ওষুধ সেবন করাতে হয়। এ ছাড়া হাঁপানির তীব্রতা প্রতিরোধে ঠাণ্ডা থেকে শিশুদের দূরে রাখতে হবে।

ডা. মুনতাসীর মারুফ


মন্তব্য