kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।

ভালো থাকুন

২০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ভালো থাকুন

শিশুর প্রথম কান্না

শিশুর প্রথম কান্নায় কেউ শশব্যস্ত হয়ে সে কান্না থামাতে যায় না, বরং এর জন্য সবাই সাগ্রহে প্রতীক্ষাই করে। কারণ এ কান্নায় প্রমাণিত হয়, শিশু স্বাভাবিকভাবে শ্বাস নিতে পারছে।

মায়ের গর্ভে থাকার সময় শিশু মায়ের দেহ থেকেই প্রয়োজনীয় পরিমাণ অক্সিজেন পেত। কিন্তু প্রসবের সঙ্গে সঙ্গে মাতৃদেহ থেকে অক্সিজেন সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। তখন কান্নার মাধ্যমে পরিবেশ থেকে অক্সিজেন নেয় নবজাতক। তাই জন্মের কয়েক মিনিটের মধ্যে নবজাতক যদি না কাঁদে বা দুর্বলভাবে কাঁদে, সে ক্ষেত্রে তার ফুসফুসে প্রয়োজনীয় বাতাস বা অক্সিজেন প্রবেশ করছে না বলে সন্দেহ করা যায়। ফুসফুসে অক্সিজেন প্রবেশ না করলে রক্তে ও পরে মস্তিষ্কে অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা দেয়। ফলে মস্তিষ্কে স্থায়ী কিছু নেতিবাচক পরিবর্তন হয়ে যেতে পারে। এর ফলে শিশুর শারীরিক বা মানসিক প্রতিবন্ধিতা হওয়ার ঝুঁকি থাকে। হাসপাতালে প্রসবের ক্ষেত্রে নবজাতক স্বাভাবিকভাবে নিজে নিজে না কাঁদলে চিকিৎসক বা সেবিকারা বিভিন্ন পদ্ধতিতে তাকে কাঁদায় বা শ্বাস নেওয়ায়। বাড়িতে প্রসবের ক্ষেত্রে জন্মের কয়েক মিনিটের মধ্যে শিশু না কাঁদলে অপচিকিৎসায় সময় নষ্ট না করে দ্রুত নিকটস্থ হাসপাতালে যোগাযোগ করুন।

ডা. মুনতাসীর মারুফ


মন্তব্য