kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।

ব্যক্তিত্ব

১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ব্যক্তিত্ব

সূর্যসেন

বিপ্লবী সূর্যসেন ১৮৯৩ সালের ১৮ অক্টোবর চট্টগ্রামের রাউজান থানার নোয়াপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। পুরো নাম সূর্যকুমার সেন।

বাবা রাজমনি সেন, মা শশীবালা দেবী। স্থানীয় দয়াময়ী বিদ্যালয়, চট্টগ্রাম ন্যাশনাল হাই স্কুল ও চট্টগ্রাম কলেজে পড়ালেখার পর বহরমপুর কলেজ থেকে বিএ পাস করেন। উমাতারা বিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করে মাস্টারদা পরিচিতি পেয়েছিলেন। তবে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন ছিল তাঁর ধ্যানজ্ঞান। ১৯২৩ সালে রেলওয়ে কর্মচারীদের বেতন ছিনতাইয়ের ঘটনায় পুলিশ বিপ্লবীদের আস্তানায় হানা দেয়। সেখানে একটি খণ্ডযুদ্ধে হলে সূর্যসেন ও তাঁর এক সহযোগী ধরা পড়েন। কিন্তু অপরাধের প্রমাণ না থাকায় তিনি ছাড়া পান। ১৯২৬ সালে সূর্যসেন আবারও গ্রেপ্তার হন, মুক্তি পান দুই বছর পর। ১৯২৯ সালে তিনি চট্টগ্রাম জেলা কংগ্রেসের সম্পাদক নির্বাচন হন। চট্টগ্রামে ব্রিটিশদের অস্ত্রাগার দখল ও জালালাবাদ পাহাড়ে কয়েক শ নিয়মিত সেনাবাহিনীর সঙ্গে বিপ্লবীদের সম্মুখযুদ্ধে তিনিই নেতৃত্ব দেন। এই সশস্ত্র অভ্যুত্থানের ঐতিহাসিক মূল্য ছিল অনেক। একপর্যায়ে সূর্যসেনকে গ্রেপ্তারের জন্য পুরস্কার ঘোষণা করা হয়। ১৯৩৩ সালে এক নিকটাত্মীয়ের বিশ্বাসঘাতকতার কারণে তিনি গ্রেপ্তার হন। কিন্তু এবারও বিচারের সময় কোনো প্রত্যক্ষ প্রমাণ হাজির করা সম্ভব হয়নি। তাঁর কাছে রিভলভার পাওয়া গিয়েছিল। এ জন্য অস্ত্র আইনে সাজা প্রত্যাশিত ছিল। এর বদলে তাঁকে ফাঁসির আদেশ দেওয়া হয়। ১৯৩৪ সালের ১২ জানুয়ারি তাঁর ফাঁসি কার্যকর হয়। তাঁর দেশপ্রেম, সাহসিকতা ইতিহাসে এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

[বাংলা একাডেমির চরিতাভিধান অবলম্বনে]


মন্তব্য