kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।

ভালো থাকুন

৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ভালো থাকুন

জন্মনিয়ন্ত্রণের পিল

জন্মনিয়ন্ত্রণের বড়ি বা ‘পিল’-এ ইস্ট্রোজেন ও প্রোজেস্টেরন নামের দুই ধরনের হরমোন থাকে। এই বড়ি ডিম্বস্ফোটনে বাধা দেয়, জরায়ুমুখের শ্লেষ্মাকে ঘন এবং চটচটে করে শুক্রাণুর প্রবেশে বাধা সৃষ্টি করে, ডিম্বনালির স্বাভাবিক নড়াচড়ার গতি কমিয়ে শুক্রাণুর গতিও কমিয়ে দেয়, জরায়ুর ভেতরের ঝিল্লির বৃদ্ধি রোধ করে ডিম্বাণু নিষিক্ত হলেও এর জন্য পরিবেশ প্রতিকূল করে তোলে।

সাধারণভাবে এসব পিল নিরাপদ ও কার্যকর। এটি একটি অস্থায়ী পদ্ধতি বলে যেকোনো সময় এটি ছেড়ে দিয়ে অন্য পদ্ধতি গ্রহণ করা যায় অথবা গর্ভধারণ করা যায়। এ ছাড়া এই বড়ি মাসিক চক্রকে নিয়মিত করে, ঋতুস্রাবের সময়কাল ও পরিমাণ কমায়, রক্তাল্পতা দূর করতে সহায়তা করে, জরায়ুর বাইরে গর্ভধারণ ও জরায়ুর ভেতরের আবরণের ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়। তবে অনেকেই এই বড়ি সহ্য করতে পারেন না, নানা ধরনের বিরূপ শারীরিক প্রতিক্রিয়া হয়। যেমন—মাথা ব্যথা, স্তন ফুলে যাওয়া ও ব্যথা, ওজন বৃদ্ধি, অস্বস্তি বোধ হওয়া, মুখে ব্রণ হওয়া, বমি বমি ভাব ইত্যাদি। উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, হাঁপানি প্রভৃতি রোগে আক্রান্ত নারীদের এই পিল ব্যবহার না করাই ভালো।

ডা. মুনতাসীর মারুফ


মন্তব্য