kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।

ভালো থাকুন

৩ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ভালো থাকুন

সন্তানকে সময় দিন

শত ব্যস্ততার মধ্যেও সন্তানের জন্য পর্যাপ্ত সময় বের করতে হবে। সন্তানকে বুঝিয়ে দিতে হবে, ওর জন্য মা-বাবা রয়েছেন।

সে যেন কখনোই নিরাপত্তার অভাব বোধ না করে। তার বন্ধু হন, তার সঙ্গে খেলুন, গল্প করুন, হৈ-হুল্লোড় করুন, তাকে নিয়ে ঘুরতে যান। সন্তানের সামনে কখনোই ঝগড়াঝাঁটি বা চেঁচামেচি করা, জিনিসপত্র ছুড়ে মারা উচিত নয়। মা-বাবার নিজেদের মধ্যে যদি সব সময় ঝগড়াঝাঁটি লেগেই থাকে, সংসারে শান্তি না থাকে, তাহলে এর প্রভাব পড়ে শিশুর মনের ওপর। খেয়াল রাখুন শিশুর বন্ধুবান্ধবের দিকেও। অসৎ সঙ্গে যেন না পড়ে, লক্ষ রাখুন। শিশু মন স্বভাবতই চঞ্চল ও কৌতূহলী। তার মনে সারাক্ষণই নানা প্রশ্নের জন্ম নেয় এবং শিশুর প্রশ্নের পর প্রশ্নে অনেকেই বিরক্ত বোধ করে। এ ধরনের বিরক্তি প্রকাশ করা উচিত নয়। শিশুর কৌতূহল মেটানোর চেষ্টা করুন, প্রশ্নের উত্তর জানা না থাকলে বা উত্তরটি দেওয়া সম্ভব না হলেও কৌশলের আশ্রয় নিন; কিন্তু ধমক দিয়ে তাকে সরিয়ে দেবেন না। মনে রাখবেন, পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মানসিক দূরত্ব বর্তমানে শিশুদের বিপথগামী হওয়ার অন্যতম কারণ।

ডা. মুনতাসীর মারুফ


মন্তব্য