kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।

ভালো থাকুন

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



ভালো থাকুন

ছোট মাছও পুষ্টিকর

মাছ, বিশেষত ছোট বা গুঁড়া মাছ খেতে অনেকেরই অনীহা দেখা যায়। কিন্তু বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, গুঁড়া মাছ স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।

কাঁচকি, মলা, ঢেলা, দাড়কিনা, চান্দা, ছোট চিংড়ি প্রভৃতি যেমন গুঁড়া মাছ, তেমনি পুঁটি, টেংরা, চাপিলা, বাইন প্রভৃতিও গুঁড়া মাছের অন্তর্ভুক্ত। বাংলাদেশের একেক অঞ্চলে একেক নামে এ ধরনের গুঁড়া মাছ পাওয়া যায়। গুঁড়া মাছে আছে প্রচুর আমিষ, যা পুষ্টিহীনতা রোধে সহায়ক। ১০০ গ্রাম পুঁটি মাছে প্রায় ১৮ গ্রাম আমিষ থাকে, যেখানে ১০০ গ্রাম বড় রুই মাছে তা ১৬ গ্রাম। ভিটামিন ‘এ’ থাকায় মলা-ঢেলাজাতীয় গুঁড়া মাছ শিশুদের রাতকানা রোগ প্রতিরোধে উপকারী। এ ছাড়া অন্যান্য ভিটামিন, খনিজ দ্রব্য, আয়রন, নিয়াসিন, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস আছে ছোট মাছে। ফলে বাড়ন্ত বয়সী শিশুদের জন্য তা উপকারী। এতে ক্ষতিকর ফ্যাট ও কোলেস্টেরল কম থাকে বলে চল্লিশোর্ধ্ব ব্যক্তিদের জন্যও তা নিরাপদ। উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে ক্যালসিয়ামসমৃদ্ধ গুঁড়া মাছ কার্যকরী। খাদ্যে অরুচি ও ক্ষুধামান্দ্য দূর করতেও গুঁড়া মাছ ভূমিকা রাখে। শিশুদের ছোটকাল থেকেই গুঁড়া মাছ খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তোলা উচিত।
 

ডা. মুনতাসীর মারুফ


মন্তব্য