kalerkantho

ভালো থাকুন

২৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ভালো থাকুন

সাঁতারের উপকারিতা

হাঁটা, জগিং, সাইকেল চালনার মতো সাঁতারও একটি ভালো ব্যায়াম। এমনকি অন্যগুলোর তুলনায় অনেকে সাঁতারকে বেশি কার্যকর মনে করে। কারণ সাঁতারে শরীরের প্রায় সব কটি অস্থিসন্ধি ও মাংসপেশির সুষম ব্যবহার হয়। ফলে পেশির দৃঢ়তা ও শক্তি বাড়ে, অস্থিসন্ধি ও লিগামেন্টের নমনীয়তা বৃদ্ধি পায়। আর্থ্রাইটিস ও স্পনডেলাইটিসের রোগীদের সাঁতার কাটা ভালো। সাঁতার ফুসফুসের কার্যক্ষমতা বাড়ায়। গবেষণায় দেখা গেছে, ছয় সপ্তাহ নিয়মিত সাঁতার কাটলে ফুসফুসের আয়তন এবং শ্বাস ধরে রাখা ও ছাড়ার দক্ষতা বাড়ে, শিশুদের হাঁপানির উন্নতি হয়, মুখে শ্বাস নেওয়া এবং ঘুমের মধ্যে নাক ডাকার প্রবণতা কমে। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, প্রতিদিন ২০-৩০ মিনিট সাঁতার কাটলে হৃদরোগের ঝুঁকি ৩০-৪০ শতাংশ কমে যায়। কমে উচ্চ রক্তচাপ, ক্ষতিকর চর্বি ও কোলেস্টেরল। সপ্তাহে তিন দিন ৩০ মিনিট করে সাঁতার কাটলে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি ১০ শতাংশ কমায়। নিয়মিত সাঁতারে শরীরের বাড়তি মেদ ঝরে যায়।

মস্তিষ্কের হিপোক্যাম্পাস অংশের স্নায়ু উজ্জীবিত হয় বলে মানসিক চাপ কমে, মন ভালো থাকে, বিষণ্নতা কমে। একজন নিয়মিত সাঁতারুর অকালমৃত্যুর আশঙ্কা শারীরিক শ্রমবিমুখ ব্যক্তির অর্ধেক।

ডা. মুনতাসীর মারুফ


মন্তব্য