kalerkantho

ভালো থাকুন

২৪ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ভালো থাকুন

কাঁধের চোট

যেকোনো খেলায় খেলোয়াড়দের মাঝেমধ্যেই কাঁধের ইনজুরিতে ভুগতে দেখা যায়। ক্রিকেটারদের ক্ষেত্রে জোরে বল ছুড়ে মারতে হয় বলে আউটফিল্ড খেলোয়াড় বা পিচ থেকে দূরে ফিল্ডিং করা খেলোয়াড়দের ক্ষেত্রে কাঁধের ইনজুরির আশঙ্কা বেশি থাকে।

বোলারদেরও বল ছুড়ে মারার একই ভঙ্গির পুনরাবৃত্তির কারণে কাঁধের ইনজুরির ঝুঁকি থাকে। এ ধরনের ইনজুরি হতে পারে ব্যাডমিন্টন, টেনিস, ভলিবল ও গলফ খেলোয়াড়দেরও। কাঁধের অস্থিসন্ধি ঘিরে সুপ্রাস্পাইনেটাস, ইনফ্রাস্পাইনেটাস, সাবস্ক্যাপুলারিস, টেরেস মাইনর প্রভৃতি ছোট ছোট পেশি থাকে যাদের একত্রে ‘রোটেটর কাফ’ পেশি বলা হয়। অতিরিক্ত ব্যবহারজনিত কারণে এসব পেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। প্রাথমিকভাবে পেশির টেনডনে প্রদাহ বা টেনডনাইটিস হয়। শুরুতেই সুচিকিৎসা না করলে পরে পেশি ছিঁড়ে যেতে পারে। এ ধরনের ইনজুরি প্রতিরোধের জন্য পেশির বিশেষ ব্যায়ামের পাশাপাশি বল ছোড়ার সঠিক কৌশল শেখানো হয়, যাতে কাঁধের পেশিতে চাপ কম পড়ে। ইনজুরি হলে প্রাথমিকভাবে কয়েক সপ্তাহ বিশ্রামের পাশাপাশি আইসপ্যাক ব্যবহার করা হয়। ব্যথা কমানোর জন্য ব্যথার ট্যাবলেট মুখে খাওয়া অথবা জেল কাঁধে লাগানো যেতে পারে।

ডা. মুনতাসীর মারুফ


মন্তব্য