kalerkantho

রবিবার। ২২ জানুয়ারি ২০১৭ । ৯ মাঘ ১৪২৩। ২৩ রবিউস সানি ১৪৩৮।

ব্যক্তিত্ব

১৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ব্যক্তিত্ব

আইরিন জোলিও কুরি

ফরাসি বিজ্ঞানী আইরিন জোলিও কুরি ছিলেন নোবেল বিজয়ী দম্পতি ও পদার্থবিজ্ঞানী মারিয়া কুরি ও পিয়েরে কুরির মেয়ে। মা-বাবার মতো আইরিনও বিখ্যাত বিজ্ঞানী ছিলেন। তিনি কৃত্রিম তেজস্ক্রিয়তা আবিষ্কারের জন্য ১৯৩৫ সালে যৌথভাবে ফ্রেডরিক জোলিও কুরির সঙ্গে নোবেল পান। তাঁরাও ছিলেন দম্পতি। কুরি দম্পতিদের এই সাফল্যের পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্বব্যাপী সফল নোবেল পরিবার হিসেবে তাঁদের খ্যাতি রয়েছে।

আইরিন কুরি ১৮৯৭ সালে ১২ সেপ্টেম্বর প্যারিসে জন্মগ্রহণ করেন। পারিবারিক আবহে লেখাপড়া শুরু হলেও ছেলেবেলা থেকে তাঁর মধ্যে অসাধারণ গাণিতিক বুদ্ধিমত্তার ছাপ স্পষ্ট হয়। কিন্তু প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামোতে সেই শিক্ষা সম্পূর্ণ হচ্ছে না বলে তাঁর মা-বাবা মনে করতেন। তাঁর মা মারিয়া কুরি বিখ্যাত কয়েকজন ফরাসি পদার্থবিদ ও গণিতবিদের সহায়তায় ‘দ্য কো-অপারেটিভ’ নামে একটি ভিন্নধারার শিক্ষাপদ্ধতি চালু করেন। এখানে খেলাচ্ছলে শিশুদের অঙ্ক, বিজ্ঞান ও বিভিন্ন ভাষায় শিক্ষা দান করা হতো। প্রায় দুই বছর স্থায়ী ব্যতিক্রমী এই শিক্ষাপদ্ধতি প্রথম মহাযুদ্ধের কারণে ব্যাহত হয়। এরপর ১৯২৪ সালে সরবোন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইরিন কুরি ডিএসসি ডিগ্রি অর্জন শেষে তরুণ রসায়নবিদ ফ্রেডরিক জোলিও কুরির সহযোগী হিসেবে যুক্ত হন। ১৯২৬ সালে তাঁরা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। ১৯২৮ সালে দুজন একত্রে পারমাণবিক পদার্থবিদ্যার গবেষণায় মনোনিবেশ করেন। তাঁরা গবেষণায় পজিট্রন ও নিউট্রনকে একত্রে দেখতে পান; যদিও গবেষণাটি শেষ পর্যন্ত সফল হয়নি। গুরুত্বপূর্ণ এই গবেষণার ফলাফলকে কেন্দ্র করে কার্ল ডেভিড এন্ডারসন ও জেমস চ্যাডউইক ১৯৩২ সালে নিউট্রন আবিষ্কার করেন। ১৯৩৫ সালে এই দম্পতি রসায়নশাস্ত্রে নোবেল পান, তাঁদের আবিষ্কারের মূল্যায়ন করা হয় কৃত্রিম তেজস্ক্রিয়তার উদ্ভাবক হিসেবে। এই আবিষ্কারের ফলে স্বল্পকালের মধ্যেই বোরন, ম্যাগনেসিয়াম ও অ্যালুমিনিয়াম সহযোগে আলফা উপাদান থেকে রেডিওআইসোটোপ আবিষ্কৃত হয়।

আইরিন জোলিও কুরি ১৯৫৬ সালের ১৭ মার্চ প্যারিসে মৃত্যুবরণ করেন।


মন্তব্য