ব্যক্তিত্ব-333868 | মুক্তধারা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৪ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৬ জিলহজ ১৪৩৭

ব্যক্তিত্ব

৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ব্যক্তিত্ব

মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান

রাজনীতিবিদ মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান বাংলাদেশের ১৯তম রাষ্ট্রপতি ছিলেন। জন্ম ১৯২৯ সালের ৯ মার্চ কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব উপজেলার ভৈরবপুরে। বাবা মেহের আলী মিঞা ছিলেন আইনজীবী। জিল্লুর রহমান ভৈরব কে বি হাই স্কুল থেকে ম্যাট্রিক, ঢাকা ইন্টারমিডিয়েট কলেজ থেকে আইএ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাসে বিএ, এমএ ও এলএলবি ডিগ্রি নেন। কলেজে পড়াকালেই সিলেটে গণভোটের কাজে প্রথম বঙ্গবন্ধুর সান্নিধ্যে আসেন তিনি। ভাষা আন্দোলনে তাঁর সক্রিয় ভূমিকা ছিল। ১৯৫২ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি তিনি ছাত্র সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন। ১৯৬৬ সালের ছয় দফা, ১৯৬৯ সালের গণ-অভ্যুত্থানসহ প্রতিটি গণ-আন্দোলনে তিনি সক্রিয় ছিলেন। ১৯৭০ সালে তিনি পাকিস্তান জাতীয় পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র পরিচালনা ও জয় বাংলা পত্রিকা প্রকাশনার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ১৯৭২ সালে তিনি দলের সাধারণ সম্পাদক হন। ১৯৭৩ সালে নির্বাচিত হন সংসদ সদস্য। ১৯৭৪ সালে তিনি ফের দলের সাধারণ সম্পাদক ও ১৯৭৫ সালে বাকশাল পলিটব্যুরো ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন। ছিলেন বাকশালের চার সেক্রেটারির অন্যতম। ১৯৭৫ সালে সপরিবারে বঙ্গবন্ধুর নৃশংস হত্যাকাণ্ডের পর তাঁকেও প্রায় চার বছর জেলে রাখা হয়। ১৯৮১ সাল থেকে তিনি আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়ামের সদস্য হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৬ সালে তিনি ফের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৯২ সালে তিনি আবারও দলের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ সালে জাতীয় সংসদ সদস্য ও ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তিনি মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০১ সালেও তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০৭ সালে শেখ হাসিনা গ্রেপ্তার হলে তিনি ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসেবে দলের হাল ধরেন। ২০০৮ সালে তিনি জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০৯ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি তিনি রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন। ২০১৩ সালের ২০ মার্চ তিনি মারা যান।

[বাংলাপিডিয়া অবলম্বনে]

মন্তব্য