kalerkantho


নির্বাচন পরিচালনায় দক্ষতার অভাব ছিল

১৬ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০



সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ডাকসু নির্বাচনের ফলাফল বিশ্লেষণে দেখা যায়, কিছু অনিয়ম হলেও সাধারণ শিক্ষার্থীদের মতামত যথাযথভাবে প্রতিফলিত হয়েছে। তবে এ নির্বাচনকে নানাভাবে প্রভাবিত ও বিতর্কিত করতে বিভিন্ন মহল অপচেষ্টা চালিয়েছে এবং এখনো তা অব্যাহত আছে। যে কারণে জাতীয় রাজনীতির কালোছায়া থেকে এ নির্বাচনও মুক্ত হতে পারেনি। কিছু রাজনৈতিক দল, যাদের জাতীয় রাজনীতিতে তেমন গ্রহণযোগ্যতা নেই, তাদের অনুসারী ছাত্রসংগঠনগুলো নিজেদের ব্যর্থতা আড়াল করতে নানা ধরনের অযৌক্তিক অভিযোগ উত্থাপন করছে। কিছু ছাত্রসংগঠন ফলাফল বাতিল করে আবার নির্বাচনের দাবিও করছে। অথচ আবার নির্বাচন হলেও ফলাফল প্রায় একই রকম হবে। ১৮টি হলের মধ্যে মাত্র দুটি হলে কিছু অনিয়ম দেখা গেছে এবং সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণ করায় নির্বিঘ্নেই নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। ডাকসু নির্বাচন নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা হয়তো কিছুদিন ধরে চলবে। এ নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের তরুণ প্রজন্ম গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রায় শতভাগ আশান্বিত হতে না পারলেও হতাশ হওয়ার কিছু নেই। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা গণতন্ত্রচর্চার যে সুযোগ পেয়েছে, তা অবশ্যই দেশের গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থায় ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

বিপ্লব বিশ্বাস

ফরিদপুর।



মন্তব্য