kalerkantho


দেশ ও জনকল্যাণে সংলাপ দরকার

৩ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



নির্বাচনী আমেজ-পরিবেশ এখনো পুরোপুরি বোঝা যাচ্ছে না। ইতিহাস বলে, একমাত্র নির্বাচনের সময় জনগণকে খোঁজ করা হয়, গুরুত্ব দেওয়া হয়। অন্যান্য সময় সাধারণ জনগণকে তেমন আর প্রয়োজন পড়ে না, গুরুত্বও থাকে না। সামনে জাতীয় নির্বাচন। গুরুত্ব পাচ্ছে ‘রাজনৈতিক সংলাপ’। ফলে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে এ মুহূর্তে আশার সুবাতাস বইছে। বাস্তবতা হলো, এ দেশে রাজনৈতিক সংলাপ সফল হওয়ার তেমন নজির নেই। নিজ নিজ রাজনৈতিক দলের স্বার্থে অটল থাকাসহ বিভিন্ন কারণে এটা হয়ে থাকে। জনগণ চায় চলমান রাজনৈতিক সংলাপ সফল হোক। সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনই যদি বড় বিষয় হয়, তাহলে নির্বাচন কমিশনকে পূর্ণ স্বাধীনতা দেওয়া ও শক্তিশালী করা, জনগণ ও রাজনৈতিক দলের মত প্রকাশের স্বাধীনতা, সভা-সমাবেশের স্বাধীনতা, সব দলের সমান সুযোগ তৈরি করাসহ সর্বোপরি আস্থার পরিবেশ ও ঐকমত্যে পৌঁছানো গুরুত্বপূর্ণ। রাজনৈতিক হানাহানির পরিবেশ ও পরস্পরের প্রতি বিষোদগার কেউ-ই চায় না। এখন শুধু সামনে এগিয়ে যাওয়ার পালা। বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ এখন মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে চায়, চলতে চায়। অনেক স্বপ্ন হাতছানি দিচ্ছে বাংলাদেশের সামনে। আশা করি সব রাজনৈতিক দল ও রাজনীতিবিদরা দেশের স্বার্থে, জনগণের কল্যাণে সংলাপ সফলের মাধ্যমে নির্বাচনকালীন সংকট দূর করবেন।

সাধন সরকার

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।



মন্তব্য