kalerkantho


যুগোপযোগী আইন চাই

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



পথে নিরাপত্তা নেই। যাত্রীরা প্রাণ হাতে নিয়ে চলাচল করে। সড়কে মৃত্যুর জন্য চালকরা দায়ী, কিন্তু তাদের বিচার হয় না। যুগোপযোগী আইন নেই। কঠোর আইন প্রণয়নের একটি উদ্যোগের কথা আমরা শুনেছি। আইনটি পাস হতে হবে। পরিবহন খাত চলছে ১৯৩৯ সালের ভারতীয় মোটরযান আইনে (পরিমার্জিত ১৯৮৩)। সংস্কারের উদ্যোগ ত্বরিত হোক। বন্ধ হোক মৃত্যুর মিছিল। দুর্ঘটনা এত বেড়ে গেছে যে আইনে যুগান্তকারী পরিবর্তন প্রয়োজন। বর্তমান আইনে অনেক অস্পষ্টতা রয়েছে।

কোন ধরনের অপরাধে কী ধারা প্রয়োগ হবে তা সরাসরি বলা নেই। ৯২ শতাংশ ক্ষেত্রেই চালকের ভুলে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। কিন্তু দোষী চালকের বিচার হতে আমরা খুব কমই দেখি। ক্ষতিপূরণের বিধান থাকলেও পরিমাণ কত হবে তা সংশোধিত আইনে স্পষ্ট করতে হবে। যাত্রী নয়, শুধু মালিকপক্ষের সুবিধা নিশ্চিত হয় এমন আইন নাগরিক অধিকার ক্ষুণ্ন করে। আইন হতে হবে মানুষের স্বার্থে, প্রভাবশালী কোনো গোষ্ঠীর জন্য নয়। মন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে অনুরোধ, সড়কে মানুষের প্রাণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন। সড়কের বেহাল দশা তো আছেই। সংস্কারের নামে চলে বাণিজ্য। এই নৈরাজ্যও বন্ধ করতে হবে। সন্তান মাকে হারাবে, মায়ের বুক খালি হবে—এমন মর্মান্তিক খবর আমরা আর সহ্য করতে পারছি না। অবৈধ পার্কিং, যেখানে-সেখানে যাহবাহন থামানো বন্ধ করতে ট্রাফিক পুলিশের সততার সঙ্গে দায়িত্ব পালনও কামনা করছি।

 

মোহাম্মদ আলী

বোরহানপুর, হাজারীবাগ রোড, ঢাকা।


মন্তব্য