kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জনপ্রত্যাশা পূরণ করতে হবে

২২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



আওয়ামী লীগ ঐতিহ্যবাহী সংগঠন। ভাষা আন্দোলন, স্বাধীনতা আন্দোলনসহ অনেক লড়াইয়ে দলটি নেতৃত্বে ছিল।

শেরেবাংলা, ভাসানী ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সংগঠন আওয়ামী লীগ। বাংলাদেশ এগিয়ে যাওয়ার পেছনে এই দলটির অনেক নেতার অবদান রয়েছে। তাই দলটির প্রতি সাধারণ মানুষের প্রত্যাশাও অনেক। তবে বর্তমানে অর্থের দাপটে হাইব্রিড নেতারা দলটিকে কুক্ষিগত করে ফেলছে। আদর্শবান, ত্যাগী নেতারা কোণঠাসা হয়ে যাচ্ছেন। উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে তিন বছর অন্তর অন্তর কাউন্সিলরদের মাধ্যমে সভাপতি ও সেক্রেটারি নির্বাচিত হতে হবে। এমপির আশীর্বাদ থাকলে যে কেউ দলে উড়ে এসে জুড়ে বসার সুযোগ পাচ্ছে। এই নোংরা ব্যবস্থার শেষ দেখতে চাই। দলে গণতন্ত্র চর্চা নিশ্চিত হলেই যোগ্য ব্যক্তিরা এগিয়ে আসবেন নেতৃত্বে। দীর্ঘদিন ধরে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় ছাত্র নির্বাচন হচ্ছে না। আগামী দিনের তোফায়েল, মেনন, মতিয়া, আবদুল কুদ্দুস মাখন সৃষ্টি তাহলে কিভাবে হবে? সব দলের অংশগ্রহণে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের পরিবেশ সৃষ্টি করা হোক। আওয়ামী লীগ এখন ক্ষমতায়। তাই সরকারের সব পর্যায়ে থাকা দুর্নীতি অবসানেও তাদের দায় রয়েছে। দলটির কোনো স্তরেই যুদ্ধাপরাধীদের ঢুকে পড়া বরদাশত করা যাবে না।

মিজানুর রহমান

বানাসুয়া, কুমিল্লা।


মন্তব্য