kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


রাজনীতিতে শেষ বলে কিছু নেই

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



বাংলাদেশ এগিয়েছে বলেই জন কেরির মতো শক্তিধররা বাংলাদেশে এসেছেন। বর্তমান গ্লোবাল অর্থনীতির যুগে বিশ্বের প্রতিটি দেশ পরস্পরের সহযোগিতানির্ভর।

ছোট-বড় সব দেশই বিশ্ব অর্থনীতিতে কমবেশি অবদান রাখছে। উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশ অগ্রসরমাণ একটি দেশ। এ ছাড়া ভূ-রাজনৈতিক অবস্থানগত দিক থেকেও বাংলাদেশের গুরুত্ব রয়েছে। চীনের সঙ্গে ভারসাম্য রক্ষায় ভারত, যুক্তরাষ্ট্র উভয়েরই বাংলাদেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক প্রয়োজন। সব দিক বিবেচনা করে, বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন নির্বাচনের আগ মুহূর্তে তাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ভারত ও বাংলাদেশ সফর অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে হয়। তবে মনে রাখা দরকার, একসময় যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেনরি কিসিঞ্জার এ দেশকে ‘তলাবিহীন ঝুড়ি’ বলেছিলেন। আমরা দেখলাম, এর অল্প কিছুদিন পর বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে নিজ বাড়িতে মর্মান্তিকভাবে নিহত হতে হলো। আজকের মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আচরণে অবশ্য সেই ধরনের হতাশা নেই। কারণ শত বাধাবিপত্তি, রক্তপাত সত্ত্বেও বাংলাদেশ এগিয়ে এসেছে বলেই জন কেরির মতো শক্তিধররা নিজ উদ্যোগে বাংলাদেশ সফর করছেন। ভারতের মতো জোটনিরপেক্ষনীতির ধারক দেশও আজ বাস্তবতার নিরিখে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় মার্কিনিদের সঙ্গে সামরিক চুক্তি সই করেছে। এতে বোঝা যায়, রাজনীতিতে শেষ কথা বলে কিছু নেই। তাই আমাদেরও ভবিষ্যতের নিরিখে জন কেরির সফরকে বিবেচনায় নিয়ে ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা নির্ধারণ করতে হবে।

কাজী ফরিদ উদ্দিন আক্তার

প্রবর্তক মোড়, চট্টগ্রাম।


মন্তব্য