হেলিকপ্টারে প্রার্থী!-334963 | মতামত | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

রবিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১০ আশ্বিন ১৪২৩ । ২২ জিলহজ ১৪৩৭


হেলিকপ্টারে প্রার্থী!

১২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



প্রথম ধাপের নির্বাচনের দিনক্ষণ এগিয়ে আসছে। এরই মধ্যে আওয়ামী লীগের অনেক প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে চলেছেন। নির্বাচনে আচরণবিধি চরমভাবে লঙ্ঘিত হওয়ার প্রতিফলন ঘটেছে। পেশিশক্তি ও অর্থের দাপটে বিরোধীপক্ষ অনেক স্থানে মনোনয়নপত্র দাখিল  করতে পারছে না। তাই বিএনপি প্রতিদ্বন্দ্বীহীন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) পুনর্নির্বাচনের ঘোষণা চাচ্ছে। জনগণের মনোনীত প্রার্থীরা যদি মনোনয়নপত্র দাখিলই করতে না পারেন, তাহলে জনগণের মতের প্রতিফলন কিভাবে ঘটবে? জনগণ যে প্রার্থী দেবে তা অর্থের দাপট, পেশিশক্তির দাপট থেকে নিরাপদে যাতে থাকে তা নিশ্চিতকরণে প্রশাসনের করণীয় রয়েছে। মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী, স্থানীয় এমপি ও উপজেলা চেয়ারম্যানরা যদি ভোটারদের কাছে যান, তাহলে তাঁদের উপস্থিতিও নির্বাচনে প্রভাব ফেলে। কারণ এতে প্রশাসনের স্থানীয় কাঠামো চাপ বোধ করে। এ ছাড়া ইউপি নির্বাচনে কোনো প্রার্থী যদি হেলিকপ্টার নিয়ে গ্রামে যান, সেই প্রার্থী দুর্নীতিবাজ হোন কি না হোন, তাঁর প্রতি মানুষের কৌতূহল সৃষ্টি হবে। অনেকে তাঁর পক্ষে মতাধিকার ব্যক্ত করতে উদ্বুদ্ধ হবেন। আকাশযান ব্যবহার নির্বাচনী আচরণবিধিও লঙ্ঘন করে। এদিকে অনেক প্রার্থী মামলা-হামলার শিকার হচ্ছেন। তাঁদের ব্যাপারে পুলিশ প্রশাসন যেন নিরপেক্ষ থাকে। প্রচারের ক্ষেত্রে সব প্রার্থীর সমান অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। তা না হলে পরবর্তী সময়ে জাতীয় নির্বাচনের সময় মানুষ ভোটদানে আগ্রহ হারিয়ে ফেলতে পারে।

মিজানুর রহমান

বানাসুয়া, কুমিল্লা।

মন্তব্য