kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সরকার ও ইসির জন্য পরীক্ষা

১২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



সরকার কি তৃণমূলে তাদের জনপ্রিয়তা যাচাই করতে চায়? তাহলে সরকার ও নির্বাচন কমিশন সবার জন্যই এ হবে অগ্নিপরীক্ষা। তবে আস্তে আস্তে ঘুম ভাঙছে আমার—যখন দেখছি ক্ষমতাসীন দলের অনেক নেতার মনোনয়ন-বাণিজ্য।

কোনো কোনো ইউনিয়নে কাউন্সিলর যাঁদের বানানো হয়েছে তাঁদের মান দেখেও আমার লজ্জা লাগে। কারণ আমরাও তো বঙ্গবন্ধুর অনুসারী। মুখে মুখে এ কথা কেন ঘুরবে—নৌকা যিনি পাবেন, চেয়ারম্যান হয়ে যাবেন? সারা দিন আস্ফাালন শুনতে শুনতে মনে হয়, তাহলে নির্বাচন দেওয়ারই বা দরকার কী।

দেশ গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে এগোচ্ছে। কিন্তু সাধারণ মানুষ তো সেই মানের সচেতন হচ্ছে না। সরকার নিরপেক্ষতা হারালে আখেরে তাদেরই ক্ষতি হবে। মানুষ তাদের ভয় করবে।

গণতন্ত্রে সব শক্তির কেন্দ্রে সাধারণ মানুষ। যদি তা-ই হয়, তবে ‘অসাধারণ’ মানুষ কিভাবে নির্বাচিত হয়? সাধারণ মানুষ কবে এই ব্যবস্থার প্রতিবাদ করবে? সরকার ও ইসিকে অনুরোধ করব, আচরণবিধি লঙ্ঘন বিষয়েই শুধু নয়, পুরো নির্বাচনী প্রক্রিয়াকে পানির মতো স্বচ্ছ করুন। তখন গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াটি সবল হবে, সরকারের ভাবমূর্তিও বাড়বে।

রুপেন সরকার আশীষ

শান্তিনিকেতন, রাঙ্গুনিয়া, চট্টগ্রাম।


মন্তব্য