kalerkantho


দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখুন

১৭ মে, ২০১৮ ০০:০০



পত্রিকার পাতা খুললেই চোখে পড়ে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির খবর। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি সাধারণ মানুষের জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে। মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষ দৈনন্দিন খরচ মেটাতে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে। রমজান আসতে না আসতেই বেড়েছে নিত্যপণ্যের দাম। রোজাদারদের কথা বিবেচনা করে বিশ্বের বেশির ভাগ মুসলিম দেশের ব্যবসায়ীরা রমজান মাসে নিত্যপণ্যের দাম কমিয়ে রাখে। অথচ দ্বিতীয় বৃহত্তম মুসলিম রাষ্ট্র বাংলাদেশের চিত্র পুরোই উল্টো। রমজান মাস শুরুর আগেই নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম অস্বাভাবিক বেড়ে যায়। নানা অজুহাতে রমজান মাসের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে অতিরিক্ত মুনাফা লুটে নিচ্ছে কিছু ব্যবসায়ী। চাল, ডাল, তেল, চিনি, লবণ, ছোলা, আটা, ময়দা, খেজুর, মসলাসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন ভোগ্যপণ্যের দাম বেড়েছে।

সরবরাহ কম থাকার অজুহাতে সিন্ডিকেট চক্র দ্রব্যের দাম ইচ্ছামতো বাড়িয়ে অধিক মুনাফা হাতিয়ে নিচ্ছে। রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি ধর্মীয় অনুভূতি ব্যাহত করে। পবিত্র রমজান মাসে দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল ও সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

মো. লিয়াকত হোসেন লিংকন

রামদিয়া বাজার, গোপালগঞ্জ।



মন্তব্য